কচুয়া

র‌্যাগিং একটি অপসংস্কৃতি,চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে র‌্যাগিং বরদাশত করা হবেনা :ওসি কচুয়া

ওমর ফারুক সাইম, কচুয়া॥
চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে নৈতিকতা ও শিষ্টাচার বাস্তবায়ন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) কচুয়া পৌরসভায় অবস্থিত চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক, কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে নৈতিকতা ও শিষ্টাচার বাস্তবায়ন কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওয়ালী উল্লাহ (অলি)।

এ সময় তিনি মাদক, বাল্যবিবাহ, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং এর বিরুদ্ধে সকলকে রুখে দাঁড়ানোর আহবান জানান। তিনি সকলকে নৈতিকতা ও শিষ্টাচার মেনে চলার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, আমরা সকল প্রকার অন্যায় কাজ করা থেকে বিরত থাকলেই ২০৪১ সালের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, র‌্যাগিং একটি অপসংস্কৃতি। ইনস্টিটিউটে কেউ র‌্যাগিং করতে পারবে না । তিনি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে র‌্যাগিংকে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষণা করেছেন। কেউ যদি র‌্যাগিং করে তবে র‌্যাগিংকারীর বিরুদ্ধে আইন-আনুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জোরালো ঘোষণা দিয়েছেন কচুয়া থানার ওসি মো. ওয়ালী উল্লাহ (অলি)। তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীর ইন্টারনেটের আসক্তি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। ইন্টারনেটে অযথা সময় নষ্ট করা যাবে না। ইন্টারনেটের আসক্তি যুব-সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে । তাই শিক্ষার্থীরা অযথা ইন্টারনেট ব্যবহার থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি ভোলার বোরহানউদ্দীন থানার ঘটনা আমরা সবাই জানি। তাই আমি সকলকে আহবান করছি গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করা যাবে না এবং কোনো অবস্থাতেই ধর্মীয় উপাসনালয়ে আক্রমণ না করা যাবে না।

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মো. লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন, ইনস্টিটিউটের ইলেকট্রনিক ডিপার্টমেন্টের চীফ ইন্সট্রাক্টর অনিমেষ চন্দ্র সূত্রধর, কন্সট্রাকশন ডিপার্টমেন্টের চীফ ইন্সট্রাক্টর খোরশেদ আলম, ননটেক ডিপার্টমেন্টের চীফ ইন্সট্রাক্টর হুমায়ুন কবির, কম্পিউটার ডিপার্টমেন্টের চীফ ইন্সট্রাক্টর নুরু সামছ চৌধুরী, ইনস্টিটিউট শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাসিরউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক শাকিল আহমেদ প্রমূখ।

এ সময় ইনস্টিটিউটের সকল ডিপার্টমেন্টের ইন্সট্রাক্টর, কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং প্রায় ২ হাজার শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। কর্মশালা শেষে চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে সততা স্টোরের শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি মো. ওয়ালী উল্লাহ (অলি) সহ অতিথিবৃন্দ।

Sharing is caring!

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
shares
Close