ঢাকা ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাকরি বাঁচাতে সেই সাধনাকে বিয়ে করছেন সেই ডিসি!

  • আপডেট: ০২:৫৩:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ অগাস্ট ২০১৯

নিউজ ডেস্ক:

যৌন কেলেঙ্কারির জেরে সদ্য ওএসডি হওয়া জামালপুরের ডিসি আহমেদ কবীর তার সেই অফিস সহকারী সাধনাকেই বিয়ে করতে যাচ্ছেন। চাকরি বাঁচাতে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছে ঘনিষ্ঠ সূত্র।

সূত্রটি আরও জানায়, স্বামীর চাকরি বাঁচাতে আহমেদ কবীরের বর্তমান স্ত্রী কঠিন হলেও এতে সম্মতি দেয়ার চিন্তা করছেন।

কঠিন সমালোচনার মুখে থাকা ওএসডি হওয়া জামালপুরের সাবেক ডিসি সবদিক চিন্তা করে সানজিদা ইয়াসমিন সাধনাকে বিয়ে করে স্ত্রীর মর্যাদা দেওয়াকেই নিজের জন্য উপযুক্ত ও সুবিধাজনক শাস্তি মনে করছেন।

প্রসঙ্গত, জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দিবাগত রাতে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়। ভিডিওটিতে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে তার অফিসের এক নারী অফিস সহায়ককে দেখা গেছে। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে এ ঘটনার জেরে ডিসি আহমেদ কবীরকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করে প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এদিকে আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে চাকরিচ্যুতও হতে পারেন বলে সোমবার জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। সূত্র: একুশে টিভি

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’র ঈদ শুভেচ্ছা

চাকরি বাঁচাতে সেই সাধনাকে বিয়ে করছেন সেই ডিসি!

আপডেট: ০২:৫৩:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ অগাস্ট ২০১৯

নিউজ ডেস্ক:

যৌন কেলেঙ্কারির জেরে সদ্য ওএসডি হওয়া জামালপুরের ডিসি আহমেদ কবীর তার সেই অফিস সহকারী সাধনাকেই বিয়ে করতে যাচ্ছেন। চাকরি বাঁচাতে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছে ঘনিষ্ঠ সূত্র।

সূত্রটি আরও জানায়, স্বামীর চাকরি বাঁচাতে আহমেদ কবীরের বর্তমান স্ত্রী কঠিন হলেও এতে সম্মতি দেয়ার চিন্তা করছেন।

কঠিন সমালোচনার মুখে থাকা ওএসডি হওয়া জামালপুরের সাবেক ডিসি সবদিক চিন্তা করে সানজিদা ইয়াসমিন সাধনাকে বিয়ে করে স্ত্রীর মর্যাদা দেওয়াকেই নিজের জন্য উপযুক্ত ও সুবিধাজনক শাস্তি মনে করছেন।

প্রসঙ্গত, জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দিবাগত রাতে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়। ভিডিওটিতে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে তার অফিসের এক নারী অফিস সহায়ককে দেখা গেছে। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে এ ঘটনার জেরে ডিসি আহমেদ কবীরকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করে প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এদিকে আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে চাকরিচ্যুতও হতে পারেন বলে সোমবার জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। সূত্র: একুশে টিভি