ঢাকা ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের প্রসংশনীয় উদ্যোগ, টাকা ফেরত দিলো আত্মসাতকারিরা

  • আপডেট: ০৩:৪১:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি:

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় বিনামুল্যে বিতরণকৃত ঘর ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রির ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনাটি বিভিন্ন স্থানিয় ও জাতীয় পত্রিকা এবং বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত হয়। ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত রাবিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের নিকট একটি অভিযোগ করেন। অভিযোগের আলোকে অর্থ আত্মসাতকারীরা সমূদয় টাকা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট ফেরত দেন। ঘটনাটি চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার রায়শ্রী উত্তর ইউনিয়নের উল্যাশ্বর গ্রামের চারু পাটোয়ারী বাড়িতে ঘটে। জানা যায়, ওই বাড়ির মৃত নুরুল হকের স্ত্রী রাবিয়া খাতুনকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর ঘর দিবে বলে একই গ্রামের আনসার আলী, রিপন চন্দ্র ধাম ও আবদুস সাত্তার ৪০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। অর্থ আত্মসাতকারীদের ছবিসহ ফেজবুক ও বিভিন্ন অনলাইনে ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তার মহতী উদ্যোগ গ্রহন করেন এবং তাঁর প্রশংসনীয় বিচক্ষনতায় অসহায় বিধবার হাতে তাদের ফেরত দেয়া টাকাগুলো তুলে দেন। এলাকার সুশীল সমাজ নির্বাহী কর্মকর্তার এহেন উদোগ ও কর্ম বাস্তবায়নের দারুন প্রশংসা করেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

গরু-ছাগলে ভরে গেছে হাট, তবে নেই ক্রেতা

শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের প্রসংশনীয় উদ্যোগ, টাকা ফেরত দিলো আত্মসাতকারিরা

আপডেট: ০৩:৪১:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি:

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় বিনামুল্যে বিতরণকৃত ঘর ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রির ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনাটি বিভিন্ন স্থানিয় ও জাতীয় পত্রিকা এবং বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত হয়। ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত রাবিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের নিকট একটি অভিযোগ করেন। অভিযোগের আলোকে অর্থ আত্মসাতকারীরা সমূদয় টাকা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট ফেরত দেন। ঘটনাটি চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার রায়শ্রী উত্তর ইউনিয়নের উল্যাশ্বর গ্রামের চারু পাটোয়ারী বাড়িতে ঘটে। জানা যায়, ওই বাড়ির মৃত নুরুল হকের স্ত্রী রাবিয়া খাতুনকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর ঘর দিবে বলে একই গ্রামের আনসার আলী, রিপন চন্দ্র ধাম ও আবদুস সাত্তার ৪০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। অর্থ আত্মসাতকারীদের ছবিসহ ফেজবুক ও বিভিন্ন অনলাইনে ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তার মহতী উদ্যোগ গ্রহন করেন এবং তাঁর প্রশংসনীয় বিচক্ষনতায় অসহায় বিধবার হাতে তাদের ফেরত দেয়া টাকাগুলো তুলে দেন। এলাকার সুশীল সমাজ নির্বাহী কর্মকর্তার এহেন উদোগ ও কর্ম বাস্তবায়নের দারুন প্রশংসা করেন।