• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৪ জানুয়ারি, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ৪ জানুয়ারি, ২০২২

প্রেমিকের সাথে দেখা করতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার ছাত্রী

অনলাইন ডেস্ক
[sharethis-inline-buttons]

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় দারিন্দা রসুলপুর গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় গত সোমবার বিকেলে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে আহম্মদ হোসেন (১৮) ও আব্দুর রহমান (১৯) নামের দুই যুবককে আসামি করে মতলব দক্ষিণ থানায় মামলা দায়ের করে।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহম্মদ হোসেন ও তাঁর সহযোগী আব্দুর রহমানের বাড়ি উপজেলার দারিন্দা রসুলপুর গ্রামে।

থানা পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে, আহম্মদ হোসেন ওই গ্রামের আবু সাঈদ সরকারের এবং আব্দুর রহমান একই গ্রামের শাহাবউদ্দিন সরকারের ছেলে। কিশোরী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সে এবং অভিযুক্তরা পাশাপাশি বাড়ির বাসিন্দা।

উপজেলার বাড়ৈগাঁও গ্রামের শাকিল মিয়া নামে এক তরুণের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ওই কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে বাড়ির পাশে ওই তরুণের সঙ্গে গোপনে দেখা করতে যান কিশোরীটি। আশপাশে আগে থেকেই ওঁৎ পেতে ছিল কিশোরীর পাশের বাড়ির আহম্মদ হোসেন ও তাঁর সহযোগী আব্দুর রহমান। তাঁরা ওই দুই প্রেমিক যুগলের কাছাকাছি গেলে ভয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় প্রেমিকটি (শাকিল)।

পরে রুমাল দিয়ে মুখ চেপে কিশোরীকে জোরপূর্বক আহম্মদ তাঁর বাড়িতে নিয়ে যান। বাড়িটির একটি নির্জন ঘরে আব্দুর রহমানের সহযোগিতায় ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন আহম্মদ।

বাড়ি ফিরে ওই কিশোরী ঘটনাটি তাঁর বাবা-মাকে জানালে তাঁরা বিষয়টি মীমাংসার জন্য স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিকে অনুরোধ করেন। কিশোরীর পরিবারকে ঘটনাটি সুরাহার আশ্বাস দিয়ে গণ্যমান্য ব্যক্তিরা এ নিয়ে কালক্ষেপণ করেন। পরে বাধ্য হয়ে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে আহম্মদ হোসেন ও আব্দুর রহমানকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

মতলব দক্ষিণ থানার ওসি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, এই ঘটনায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। মামলার দুই আসামি বাড়িতে না থাকায় তাঁদের এখনো গ্রেপ্তরা করা যায়নি। তবে তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!

[sharethis-inline-buttons]

আরও পড়ুন

  • মতলব দক্ষিণ এর আরও খবর