ঢাকা ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে মসজিদে ওসির সচেতনতামূলক বয়ান

  • আপডেট: ১০:৫৯:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪
  • ১১

ছবি-নতুনেরকথা।

মনিরুল ইসলাম মনির:
সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে মতলব উত্তরের মোহনপুর জামে মসজিদে বয়ান করেছেন মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি।

শুক্রবার (৩১মে) জুমার নামাজের সময় মোহনপুর জামে মসজিদে বয়ান করেন তিনি।

ওসি আলমগীর হোসেন রনি মুসল্লিদের উদ্দেশে বলেন, মাদক, অভ্যাসগত চোর, বাল্যবিবাহসহ বিভিন্ন সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। কিশোর গ্যাং-মাদক-বাল্যবিবাহ রোধে সকলের দায়িত্ব পালন করতে হবে। এ সময় তিনি সকল অনাচার রোধে সর্বস্তরের মানুষকে দায়িত্ববান হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বিকাশ প্রতারণা-মোবাইল গেমিং-সন্ত্রাস-কিশোর অপরাধ নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি তুলে ধরেন জঙ্গিবাদ-ফেসবুকে গুজব-ইভটিজিংয়ের ভয়াবহতা। মসজিদে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-সামাজিক অবক্ষয় রোধে সকলের করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করেন। এলাকায় কোনো ধরনের অপরাধ, বাল্য বিবাহ, মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি সহ যে কোনো অবৈধ কার্যকলাপ সংঘটিত হলে সরাসরি থানায় যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন।

ওসি বলেন, ইতিমধ্যে দেখা গেছে, কোন ব্যক্তি আমাকে ফোন করে বলে এই জায়গায় এক ব্যক্তি মাদকের ব্যবসা করছে বা মাদক সেবন করছে। যে ব্যক্তি আমাকে বিষয়টি ফোন করে জানালো সেই ব্যক্তিই আবার অপরাধিকে বলে এখান থেকে ভাগো পুলিশ আসছে। যিনি ফোন করে পুলিশকে খবর দেয় আবার তিনিই পরে প্রকাশ করে বেড়ায় যে আমিই পুলিশকে খবর দিয়েছিলাম। এমনটি করা যাবে না। যারা আমাদেরকে অপরাধীদের তথ্য দিবে তাদের পরিচয় সবসময় আমরা গোপন রাখবো। আপনারা কেন কারও শত্রু হতে যাবেন। আপনাদের শত্রু হওয়ার দরকার নেই, অপরাধীদের শত্রু আমরা পুলিশরাই হবো। তাই যে আমাদের তথ্য দিবে তার পরিচয় আমরা গোপন রাখবো।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

গরু-ছাগলে ভরে গেছে হাট, তবে নেই ক্রেতা

মতলব উত্তরে মসজিদে ওসির সচেতনতামূলক বয়ান

আপডেট: ১০:৫৯:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪

মনিরুল ইসলাম মনির:
সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে মতলব উত্তরের মোহনপুর জামে মসজিদে বয়ান করেছেন মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি।

শুক্রবার (৩১মে) জুমার নামাজের সময় মোহনপুর জামে মসজিদে বয়ান করেন তিনি।

ওসি আলমগীর হোসেন রনি মুসল্লিদের উদ্দেশে বলেন, মাদক, অভ্যাসগত চোর, বাল্যবিবাহসহ বিভিন্ন সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। কিশোর গ্যাং-মাদক-বাল্যবিবাহ রোধে সকলের দায়িত্ব পালন করতে হবে। এ সময় তিনি সকল অনাচার রোধে সর্বস্তরের মানুষকে দায়িত্ববান হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বিকাশ প্রতারণা-মোবাইল গেমিং-সন্ত্রাস-কিশোর অপরাধ নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি তুলে ধরেন জঙ্গিবাদ-ফেসবুকে গুজব-ইভটিজিংয়ের ভয়াবহতা। মসজিদে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-সামাজিক অবক্ষয় রোধে সকলের করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করেন। এলাকায় কোনো ধরনের অপরাধ, বাল্য বিবাহ, মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি সহ যে কোনো অবৈধ কার্যকলাপ সংঘটিত হলে সরাসরি থানায় যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন।

ওসি বলেন, ইতিমধ্যে দেখা গেছে, কোন ব্যক্তি আমাকে ফোন করে বলে এই জায়গায় এক ব্যক্তি মাদকের ব্যবসা করছে বা মাদক সেবন করছে। যে ব্যক্তি আমাকে বিষয়টি ফোন করে জানালো সেই ব্যক্তিই আবার অপরাধিকে বলে এখান থেকে ভাগো পুলিশ আসছে। যিনি ফোন করে পুলিশকে খবর দেয় আবার তিনিই পরে প্রকাশ করে বেড়ায় যে আমিই পুলিশকে খবর দিয়েছিলাম। এমনটি করা যাবে না। যারা আমাদেরকে অপরাধীদের তথ্য দিবে তাদের পরিচয় সবসময় আমরা গোপন রাখবো। আপনারা কেন কারও শত্রু হতে যাবেন। আপনাদের শত্রু হওয়ার দরকার নেই, অপরাধীদের শত্রু আমরা পুলিশরাই হবো। তাই যে আমাদের তথ্য দিবে তার পরিচয় আমরা গোপন রাখবো।