• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারি, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ১১ জানুয়ারি, ২০২২

র‌্যাব পরিচয়ে প্রতারণা, তিন তরুণীসহ গ্রেফতার ৫

অনলাইন ডেস্ক
[sharethis-inline-buttons]

কুমিল্লায় র‌্যাব পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে তিন তরুণীসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার রাতে জেলার কোতোয়ালি থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় র‌্যাব ১১।

বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, ৬ জানুয়ারি এক ব্যক্তি র‌্যাব ১১ এর সিপিসি ২ কুমিল্লা ক্যাম্পে একটি অভিযোগ প্রদান করেন। সেখানে উল্লেখ করেন যে, র‌্যাব পরিচয়ে একটি প্রতারক চক্র তার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব কুমিল্লা ছায়া তদন্ত শুরু করে। পরে মাঠপর্যায়ে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ১০ জানুয়ারি গভীর রাতে কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এ সময় প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য তিন তরুণীসহ ৫ জন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কোতোয়ালি থানার দক্ষিণ চর্থা গ্রামের মৃত শাহজাহান মিয়ার ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন (৩৫), সদর দক্ষিণ থানার দিশাবন গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে জুম্মন মিয়া (২৫), চান্দিনা থানার অম্বলপুর গ্রামের মৃত আলী আজগরের মেয়ে জোসনা (২৫), কোতোয়ালি থানার আড়াইউড়া গ্রামের মুছা মিয়ার মেয়ে হাসি আক্তার (২৪) ও তার ছোটবোন মিন্নি আক্তার (১৮)।

এ সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় র‌্যাবের ব্যবহৃত একটি জ্যাকেট।

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেফতারকৃত প্রতারক চক্রের সদস্যরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, প্রতারক চক্রের সদস্য জুম্মন মিয়া একজন মাছ ব্যবসায়ী। এ সুবাদে বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তুলত জুম্মন। পরবর্তীতে সহজ-সরল ব্যক্তিদের টার্গেট করে তাদের নারীর প্রলোভন দেখিয়ে ভুক্তভোগীদের কাছে নারী সরবরাহ করত জুম্মন।

পরে ভোক্তভোগীরা এসব নারীর সাথে একান্ত সময় কাটাতে গেলে ঠিক তখনই জুম্মন মিয়া প্রতারক চক্রের অন্য সদস্যদের নিয়ে ভুক্তভোগী পুরুষের একান্ত মুহূর্তের ভিডিও ধারণ করে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে ভুক্তভোগী পুরুষের কাছ থেকে নগদ অর্থ ও মোবাইল ছিনিয়ে নিত। পরবর্তীতে এসব ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ও মামলার ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিত তারা।

র‌্যাব ১১ সিপিসি ২ কুমিল্লা কোম্পানির অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন বলেন, প্রতারক চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

Sharing is caring!

[sharethis-inline-buttons]

আরও পড়ুন

  • সারা দেশ এর আরও খবর