• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১ মে, ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট : ১ মে, ২০২৪

ছাত্রদের মার্কস বাড়িয়ে দিতে শিক্ষিকার সাথে যৌন সম্পর্কের প্রস্তাব

অনলাইন ডেস্ক
[sharethis-inline-buttons]
ছবি-নতুনেরকথা।

পরীক্ষায় ভালো মার্কস পেতে হলে তার সঙ্গে রাখতে হবে যৌন সম্পর্ক। যখনই ডাকবেন, ছুটে যেতে হবে। পূরণ করতে হবে তার মনোবাসনা। এতে উপরি হিসেবে পাওয়া যাবে মোটা অঙ্কের অর্থ। শিক্ষার্থীদের এমন বাজে প্রস্তাব দিতেন এই নারী শিক্ষিকা। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

বিষয়টি প্রকাশ হয়ে যাওয়ার পরই তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েন এই সহকারী অধ্যাপক। চাপের মুখে তাকে বরখাস্ত করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। মুখোমুখি করা হয় বিচারের। জানা গেছে, এমন কাণ্ড ঘটান ভারতের তামিলনাড়ুর দেবঙ্গ আর্ট কলেজের সাবেক সহকারী অধ্যাপক নির্মলা দেবী।

৬ বছর আগের এই যৌন কেলেঙ্কারিটি প্রকাশ্যে আসতেই তামিলনাড়ুসহ গোটা ভারতে সৃষ্টি হয়েছিল আলোড়ন। দীর্ঘ শুনানির পর অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সেই শিক্ষিকাকে দেওয়া হয়েছে ১০ বছরের কারাদণ্ড। সঙ্গে করা হয়েছে আর্থিক জরিমানাও।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের জন্য ছাত্রীদের কাছে যৌন সুবিধা চাওয়ার দায়ে সাবেক সহকারী অধ্যাপক নির্মলা দেবীকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য তামিলনাড়ুর একটি আদালত।
অভিযুক্ত নির্মলা তামিলনাড়ুর মাদুরাই কামরাজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ দেবঙ্গ আর্ট কলেজের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। গেল সোমবার দেওয়া আদালতের রায়ে তাকে ৫টি ধারার অধীনে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। জরিমানা করা হয় প্রায় আড়াই লাখ রুপি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, যৌন সম্পর্কের বদলে দেওয়া হবে বেশি নম্বর! ৬ বছর আগের সেই যৌন কেলেঙ্কারির মামলায় শুনানি শেষ করে সোমবার তামিলনাড়ুর একটি মহিলা আদালত নির্মলা দেবীকে দোষী সাব্যস্ত করে। পরে আদালত তার রায়ে নির্মলা দেবীকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয়। সেই সঙ্গে করা হয় জরিমানাও।

যা ঘটেছিল ভারতে তোলপাড় ফেলে দেওয়া এই ঘটনাটি প্রকাশ্যে এসেছিল ২০১৮ সালের এপ্রিলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেসময় একটি অডিও টেপ ভাইরাল হয়েছিল। তাতে তৎকালীন অধ্যাপক নির্মলা দেবীর সঙ্গে কলেজ ছাত্রীদের কথাবার্তা ভাইরাল হয়।

অডিও টেপে বলতে শোনা যায়— বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্কের বদলে পরীক্ষায় ৮৫ শতাংশ পর্যন্ত নম্বর পাওয়া যাবে। আর সেই সঙ্গে অর্থও পাওয়া যাবে। কলেজ ছাত্রীদের নির্মলা দেবী সেই প্রস্তাব দিলেও অবশ্য তারা রাজি হননি।

এই নিয়ে নির্মলার বিরুদ্ধে সেই সময় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন ৪ ছাত্রী। যদিও নির্মলা সেই সময় এই কথা অস্বীকার করেছিলেন। কিন্তু, এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয় তামিলনাড়ুতে।

Sharing is caring!

[sharethis-inline-buttons]

আরও পড়ুন

  • আন্তর্জাতিক এর আরও খবর
error: Content is protected !!