ঢাকা ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর আল আমিন একাডেমীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মকবুল আহমেদ আটক

  • আপডেট: ০৬:০৮:২৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি:

চাঁদপুর আল আমিন একাডেমীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মকবুল আহমেদকে চাঁদপুর আদালত এলাকা গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ।বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে ইটভাটা সংক্রান্ত একটি যৌথ ব্যবসার মামলায় জামিন নিয়ে আদালত থেকে বের হয়ে গেটের সামনে আসলে সাদা পোশাকের একদল পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে তার সাথে থাকা জামিন প্রাপ্ত মামলার সাক্ষী ও আল আমিন একাডেমির সহকারী শিক্ষক ইব্রাহীম আল আজাদ চাঁদপুর টাইমসকে জানান, ‘ আমাদের শিক্ষকদের নিয়ে একটি বাণিজ্যিক ও অর্থনেতিক সমিতি রয়েছে। এ সমিতির সভাপতি মকবুল হোসেন। সমিতির মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ইটভাটার জন্যে কিছুদিন আগে সমিতির নামে ভূমি কেনা হয়েছে। ভূমি কেনার পরপরই সমিতির একজন সদস্য পিএম জামাল হোসেন তার শেয়ার অংশ দাবি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে পিএম জামাল ও সমিতির অন্যান্য সদস্যদের সাথে ওই মামলার আপোষনামা দিয়েই আমরা আদালত থেকে বেরিয়ে আসতেই সাদা পোষাকের পুলিশ সদস্যরা মকবুল আহমেদকে জানান তাকে থানায় যাতে হবে। অফিসার ইনচার্জ তার সাথে কথা বলবেন। এসময় জামিন পাওয়া মামলার অপর সাক্ষী ও আল-আমিন একাডেমির অপর শিক্ষক তাফাজ্জল হোসেন উপস্থিত ছিলেন বলে ইব্রাহীম আল আজাদ মুঠোফোনে দেয়া বক্তব্যে সাথে যোগ করেন। পরে মকুবুল আহমেদের  পরিবারের সদস্যরা থানায় গিয়ে কোন মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে তা জানতে পারেনি।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে চাঁদপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসিম উদ্দিন জানান, মকবুল আহমেদের বিরুদ্ধে পূর্বের একাধিক মামলা রয়েছে। তবে তিনি আমাদের হেফাজতে রয়েছেন। তবে মকবুল আহমেদকে কি অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে তা তিনি নির্দিষ্ট করে বলেননি।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাঁদপুর আল আমিন একাডেমীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মকবুল আহমেদ আটক

আপডেট: ০৬:০৮:২৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিনিধি:

চাঁদপুর আল আমিন একাডেমীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মকবুল আহমেদকে চাঁদপুর আদালত এলাকা গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ।বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে ইটভাটা সংক্রান্ত একটি যৌথ ব্যবসার মামলায় জামিন নিয়ে আদালত থেকে বের হয়ে গেটের সামনে আসলে সাদা পোশাকের একদল পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে তার সাথে থাকা জামিন প্রাপ্ত মামলার সাক্ষী ও আল আমিন একাডেমির সহকারী শিক্ষক ইব্রাহীম আল আজাদ চাঁদপুর টাইমসকে জানান, ‘ আমাদের শিক্ষকদের নিয়ে একটি বাণিজ্যিক ও অর্থনেতিক সমিতি রয়েছে। এ সমিতির সভাপতি মকবুল হোসেন। সমিতির মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ইটভাটার জন্যে কিছুদিন আগে সমিতির নামে ভূমি কেনা হয়েছে। ভূমি কেনার পরপরই সমিতির একজন সদস্য পিএম জামাল হোসেন তার শেয়ার অংশ দাবি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে পিএম জামাল ও সমিতির অন্যান্য সদস্যদের সাথে ওই মামলার আপোষনামা দিয়েই আমরা আদালত থেকে বেরিয়ে আসতেই সাদা পোষাকের পুলিশ সদস্যরা মকবুল আহমেদকে জানান তাকে থানায় যাতে হবে। অফিসার ইনচার্জ তার সাথে কথা বলবেন। এসময় জামিন পাওয়া মামলার অপর সাক্ষী ও আল-আমিন একাডেমির অপর শিক্ষক তাফাজ্জল হোসেন উপস্থিত ছিলেন বলে ইব্রাহীম আল আজাদ মুঠোফোনে দেয়া বক্তব্যে সাথে যোগ করেন। পরে মকুবুল আহমেদের  পরিবারের সদস্যরা থানায় গিয়ে কোন মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে তা জানতে পারেনি।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে চাঁদপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসিম উদ্দিন জানান, মকবুল আহমেদের বিরুদ্ধে পূর্বের একাধিক মামলা রয়েছে। তবে তিনি আমাদের হেফাজতে রয়েছেন। তবে মকবুল আহমেদকে কি অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে তা তিনি নির্দিষ্ট করে বলেননি।