ঢাকা ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে লক্ষাধিক মুসল্লীর জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায়

  • আপডেট: ১০:৪৫:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০১৯
  • ১০

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ/গাজী মহিনউদ্দিন॥
প্রখর রোদ উপেক্ষা করে হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে একসাথে লক্ষাধিক মুসল্লী জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায় করেছে। শুক্রবার জুম’আতুল বিদা’আ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এ মসজিদে নামাজ পড়তে আসে। সকাল ১১টার মধ্যেই বিশাল মসজিদের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়।
দূর-দূরান্ত থেকে আগত মুসল্লিদের নির্বিঘ্নে নামাজ আদায় করতে মসজিদ কর্তৃপক্ষ মসজিদের মাঠ, আহমাদিয়া আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ ও ভবন, কওমী মাদ্রাসা ভবন, হাজীগঞ্জ টাওয়ার, রজনীগন্ধ্যা মার্কেট, হাজীগঞ্জ প্লাজা, নির্মিতব্য বিজনেস পার্ক, প্রাইম ব্যাংক ভবন, সাবেক পৌরসভার উপরে বিশাল জামায়াতের আয়োজন করা হয়। এ সব ভবন সাড়ে ১২টার মধ্যেই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের অংশগ্রহণে পরিপূর্ণ হয়ে যায়। জুময়ার নামাজের আযানের পর বয়ান পেশ করেন হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব মুফতি আবদুর রউফ।


দুপর ১টায় কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহা সড়ক স্টেশন রোডের সম্মুখ থেকে শুরু করে পূর্ব বাজারস্থ বড় ব্রীজ পর্যন্ত মুসল্লীদের নামাজের কাতার ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে সকল প্রকার যানবাহন চলা-চল বন্ধ হয়ে যায়। প্রখর রোদ উপেক্ষা করে মুসুল্লীগন, মাঠ ও মহাসড়কে নামাজ আদায় করে। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব আলহাজ¦ মুফতি আব্দুর রউফ। মোনাজাতের সময় আমিন আমিন ধ্বনীতে আকাশ-বাতাস মূখরিত হয়ে উঠে। এ সময় আল্লাহর দরবারে পানা’হ চেয়ে জুম’আতুল বিদা’র মোনাজাতে মুসুল্লীদের কান্নায় আকাশ-বাতাশ ভারি হয়ে উঠে।


জুম’আতুল বিদা’র জামায়াতের প্রস্তুতি ও জুম’আতুল বিদা’র জামায়াত প্রসঙ্গে হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের মোতাওয়াল্লী শিক্ষাবিদ ড. মো. আলমগীর কবির পাটওয়ারী বলেন, আলহামদুলিল্লাহ প্রখর রোদ উপেক্ষ করে বিশাল জামায়াতে নামাজ আদায় করেছি। অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায়ের বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে অনেক বেশী। যার ফলে শান্তিপূর্ণ ও সুশৃঙ্খলভাবে নামাজ আদায় সম্পন্ন হয়েছে।
এ সময় পৌরসভা, থানা প্রশাসন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, বিশাল জামায়াত মসজিদ কর্তৃপক্ষের একার পক্ষে আয়োজন করা কঠিন। সবার আন্তরিক সহযোগিতা না থাকলে জুমাতুল বিদাহ নামাজ শৃঙ্খলার মধ্যে দিয়ে আদায় করা সম্ভব হতো না।
জুময়াতুল বিদা’র জামায়াতে চাঁদপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’সহ প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে লক্ষাধিক মুসল্লীর জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায়

আপডেট: ১০:৪৫:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০১৯

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ/গাজী মহিনউদ্দিন॥
প্রখর রোদ উপেক্ষা করে হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে একসাথে লক্ষাধিক মুসল্লী জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায় করেছে। শুক্রবার জুম’আতুল বিদা’আ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এ মসজিদে নামাজ পড়তে আসে। সকাল ১১টার মধ্যেই বিশাল মসজিদের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়।
দূর-দূরান্ত থেকে আগত মুসল্লিদের নির্বিঘ্নে নামাজ আদায় করতে মসজিদ কর্তৃপক্ষ মসজিদের মাঠ, আহমাদিয়া আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ ও ভবন, কওমী মাদ্রাসা ভবন, হাজীগঞ্জ টাওয়ার, রজনীগন্ধ্যা মার্কেট, হাজীগঞ্জ প্লাজা, নির্মিতব্য বিজনেস পার্ক, প্রাইম ব্যাংক ভবন, সাবেক পৌরসভার উপরে বিশাল জামায়াতের আয়োজন করা হয়। এ সব ভবন সাড়ে ১২টার মধ্যেই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের অংশগ্রহণে পরিপূর্ণ হয়ে যায়। জুময়ার নামাজের আযানের পর বয়ান পেশ করেন হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব মুফতি আবদুর রউফ।


দুপর ১টায় কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহা সড়ক স্টেশন রোডের সম্মুখ থেকে শুরু করে পূর্ব বাজারস্থ বড় ব্রীজ পর্যন্ত মুসল্লীদের নামাজের কাতার ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে সকল প্রকার যানবাহন চলা-চল বন্ধ হয়ে যায়। প্রখর রোদ উপেক্ষা করে মুসুল্লীগন, মাঠ ও মহাসড়কে নামাজ আদায় করে। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব আলহাজ¦ মুফতি আব্দুর রউফ। মোনাজাতের সময় আমিন আমিন ধ্বনীতে আকাশ-বাতাস মূখরিত হয়ে উঠে। এ সময় আল্লাহর দরবারে পানা’হ চেয়ে জুম’আতুল বিদা’র মোনাজাতে মুসুল্লীদের কান্নায় আকাশ-বাতাশ ভারি হয়ে উঠে।


জুম’আতুল বিদা’র জামায়াতের প্রস্তুতি ও জুম’আতুল বিদা’র জামায়াত প্রসঙ্গে হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের মোতাওয়াল্লী শিক্ষাবিদ ড. মো. আলমগীর কবির পাটওয়ারী বলেন, আলহামদুলিল্লাহ প্রখর রোদ উপেক্ষ করে বিশাল জামায়াতে নামাজ আদায় করেছি। অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার জুম’আতুল বিদা’র নামাজ আদায়ের বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে অনেক বেশী। যার ফলে শান্তিপূর্ণ ও সুশৃঙ্খলভাবে নামাজ আদায় সম্পন্ন হয়েছে।
এ সময় পৌরসভা, থানা প্রশাসন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, বিশাল জামায়াত মসজিদ কর্তৃপক্ষের একার পক্ষে আয়োজন করা কঠিন। সবার আন্তরিক সহযোগিতা না থাকলে জুমাতুল বিদাহ নামাজ শৃঙ্খলার মধ্যে দিয়ে আদায় করা সম্ভব হতো না।
জুময়াতুল বিদা’র জামায়াতে চাঁদপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’সহ প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।