ঢাকা ০৮:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে জুমাতুল বিদা ও ঈদের জামাত আয়োজনে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

  • আপডেট: ১০:৫৮:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০১৯

মো: মহিউদ্দিন আল আজাদ:

পবিত্র রমজান মাসের শেষ শুক্রবার (৩১ মে ) পবিত্র জুমাতুলবিদা। আন্তর্জাতিকভাবে এ দিনকে আল-কুদস দিবসও বলা হয়।পবিত্র ‘ জুমাতুলবিদা’ হচ্ছে রমজান মাসের শেষ শুক্রবার। অনেক মুসল্লী শুক্রবারকে‘গরীবের হজ্জ্বের দিন’ বলে আখ্যায়িত করে থাকেন।
ফলে দেশের ছোট-বড় সকল মসজিদেই মুসল্লিদের নামাজ আদায়ের সুবিধার্থে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় । প্রতিবছরের ন্যায় এবারো চাঁদপুর জেলার সর্ববৃহৎ,প্রাচীন ও ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে ‘পবিত্র জুমাতুলবিদা’পালনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
এ মসজিদে বেলা ১০ টার পর থেকে চাঁদপুরের বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা,প্রশাসনিক কর্মকর্তা,ব্যবসায়ী,ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার,শিক্ষক,  ছাত্রসহ জেলার

দুরদূরান্ত থেকে সকল পেশার মুসল্লিগণ জুমাতুল বিদা নামাজ আদায়ে ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে সমবেত হন।

মুসল্লিদের সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে নামাজ আদায় করতে সড়কে প্রয়োজনীয় কাপড়ের দস্তর বিছানোর ব্যবস্থা রাখা হবে। মসজিদ কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণে আন্তরিক রযেছেন আমাদের মসজিদ কমিটি। হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে আসন্ন ঈদুল ফেতরের দু’টো জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকার ৮ টায় ও দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল ১০ টায়।

চাঁদপুরের ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে বিশেষ ব্যবস্থাগ্রহণ সম্পর্কে মসজিদ ব্যবস্থাপনা কমিটির মোতোয়াল্লিঅধ্যক্ষ ড.মো.আলমগীর কবির পাটোয়ারী বুধবার (২৯ মে) জানান,‘ মুসলিম উম্মার জন্যে এ দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। প্রতিবছরের ন্যায় এবারো জুমাতুল বিদা পালনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এরইমধ্যে সংশিষ্ট সকলের দায়িত্ব বন্টন করা হয়েছে। মুসল্লিদের সুবিধার্থে ও ক্রমাগত সংখ্যা বৃদ্ধিতে নতুন নতুন ব্যবস্থা ও প্রাসঙ্গিক সকল সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন,‘নামাজের সময় নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত রাখার বিষয়ে এরইমধ্যে পল্লীবিদ্যুৎ বিভাগ হাজীগঞ্জকে এবং পৌর মেয়রকে বাজার পরিস্কার পরিছন্ন রাখার ক্ষেত্রে সর্বাত্মক সহায়তা প্রদানের নির্দেশ দিতে তাঁর দপ্তরের সংশ্লিষ্ঠ জনবলকে অনুরোধ জানিয়েছেন।’

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় জামে মসজিদের ব্যবস্থাপক মো.শাহ আলম বুধবার (২৯ মে) বলেন,‘ দিন দিন মুসল্লীদের সংখ্যা বৃদ্ধিতে ও বর্তমান আবহাওয়ার কথা চিন্তা করে টাওয়া মার্কেট, রজনীগন্ধ্যা মার্কেট, কাওমী মাদ্রাসা ও মার্কেট,আলীয়া মাদ্রাসা ও প্লাাজা মার্কেটে পবিত্র জুমাতুলবিদা’র নামাজ আদায়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

তা’ছাড়াও বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা, আইন-শৃংখলা রক্ষায় পুলিশ ও প্রায় ৩ শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক থাকবে। মসজিদ এরিয়া ব্যতীত হাজীগঞ্জ বাজার রোডে বিভিন্ন সুবিধাজনক স্থানে বিশেষ ওজুর ব্যবস্থা রাখা হবে বলে তিনি জানান। বর্তমানে শতাধিক এতেহকাফ অংশগ্রহণকারীর বিভিন্ন প্রকার সেবা প্রদানে মসজিদ কমিটি কাজ করে যাচ্ছে। নামাজ পড়াবেন মুফতি আবদুর রউফ।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে জুমাতুল বিদা ও ঈদের জামাত আয়োজনে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

আপডেট: ১০:৫৮:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০১৯

মো: মহিউদ্দিন আল আজাদ:

পবিত্র রমজান মাসের শেষ শুক্রবার (৩১ মে ) পবিত্র জুমাতুলবিদা। আন্তর্জাতিকভাবে এ দিনকে আল-কুদস দিবসও বলা হয়।পবিত্র ‘ জুমাতুলবিদা’ হচ্ছে রমজান মাসের শেষ শুক্রবার। অনেক মুসল্লী শুক্রবারকে‘গরীবের হজ্জ্বের দিন’ বলে আখ্যায়িত করে থাকেন।
ফলে দেশের ছোট-বড় সকল মসজিদেই মুসল্লিদের নামাজ আদায়ের সুবিধার্থে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় । প্রতিবছরের ন্যায় এবারো চাঁদপুর জেলার সর্ববৃহৎ,প্রাচীন ও ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে ‘পবিত্র জুমাতুলবিদা’পালনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
এ মসজিদে বেলা ১০ টার পর থেকে চাঁদপুরের বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা,প্রশাসনিক কর্মকর্তা,ব্যবসায়ী,ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার,শিক্ষক,  ছাত্রসহ জেলার

দুরদূরান্ত থেকে সকল পেশার মুসল্লিগণ জুমাতুল বিদা নামাজ আদায়ে ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে সমবেত হন।

মুসল্লিদের সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে নামাজ আদায় করতে সড়কে প্রয়োজনীয় কাপড়ের দস্তর বিছানোর ব্যবস্থা রাখা হবে। মসজিদ কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণে আন্তরিক রযেছেন আমাদের মসজিদ কমিটি। হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে আসন্ন ঈদুল ফেতরের দু’টো জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকার ৮ টায় ও দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল ১০ টায়।

চাঁদপুরের ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে বিশেষ ব্যবস্থাগ্রহণ সম্পর্কে মসজিদ ব্যবস্থাপনা কমিটির মোতোয়াল্লিঅধ্যক্ষ ড.মো.আলমগীর কবির পাটোয়ারী বুধবার (২৯ মে) জানান,‘ মুসলিম উম্মার জন্যে এ দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। প্রতিবছরের ন্যায় এবারো জুমাতুল বিদা পালনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এরইমধ্যে সংশিষ্ট সকলের দায়িত্ব বন্টন করা হয়েছে। মুসল্লিদের সুবিধার্থে ও ক্রমাগত সংখ্যা বৃদ্ধিতে নতুন নতুন ব্যবস্থা ও প্রাসঙ্গিক সকল সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন,‘নামাজের সময় নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত রাখার বিষয়ে এরইমধ্যে পল্লীবিদ্যুৎ বিভাগ হাজীগঞ্জকে এবং পৌর মেয়রকে বাজার পরিস্কার পরিছন্ন রাখার ক্ষেত্রে সর্বাত্মক সহায়তা প্রদানের নির্দেশ দিতে তাঁর দপ্তরের সংশ্লিষ্ঠ জনবলকে অনুরোধ জানিয়েছেন।’

হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় জামে মসজিদের ব্যবস্থাপক মো.শাহ আলম বুধবার (২৯ মে) বলেন,‘ দিন দিন মুসল্লীদের সংখ্যা বৃদ্ধিতে ও বর্তমান আবহাওয়ার কথা চিন্তা করে টাওয়া মার্কেট, রজনীগন্ধ্যা মার্কেট, কাওমী মাদ্রাসা ও মার্কেট,আলীয়া মাদ্রাসা ও প্লাাজা মার্কেটে পবিত্র জুমাতুলবিদা’র নামাজ আদায়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

তা’ছাড়াও বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা, আইন-শৃংখলা রক্ষায় পুলিশ ও প্রায় ৩ শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক থাকবে। মসজিদ এরিয়া ব্যতীত হাজীগঞ্জ বাজার রোডে বিভিন্ন সুবিধাজনক স্থানে বিশেষ ওজুর ব্যবস্থা রাখা হবে বলে তিনি জানান। বর্তমানে শতাধিক এতেহকাফ অংশগ্রহণকারীর বিভিন্ন প্রকার সেবা প্রদানে মসজিদ কমিটি কাজ করে যাচ্ছে। নামাজ পড়াবেন মুফতি আবদুর রউফ।