ঢাকা ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবারো আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে ফিরছেন শারজিল খান

  • আপডেট: ০৩:৪৭:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯

ক্রীড়া ডেস্ক:

নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কাছে আবেদন করেছেন পাকিস্তানের তারকা ওপেনার শারজিল খান। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে পিসিবি। এখন থেকে পেশাদার ক্রিকেট খেলতে আর কোনো বাঁধা-নিষেধ থাকল না শারজিল খানের।

পাকিস্তানের হয়ে ৪১টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে এক সেঞ্চুরি করে ১ হাজার ২১৬ রান করা শারজিল খান বলেন, আমি আমার দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড, সতীর্থ এবং ভক্ত-সমর্থকদের কাছে বিনা শর্তে ক্ষমা চাইছি। আমি ক্ষমার জন্য বোর্ডের কাছে অনুরোধ করছি এবং আশ্বাস দিচ্ছি যে, ভবিষ্যতে আরও দায়িত্বশীল হবো।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের এ ওপেনার আরও বলেন, পাকিস্তানের সব ক্রিকেটারকে পিসিবি দুর্নীতি দমন আইনকে কঠোরভাবে অনুসরণ করার জন্য স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি যে, এতে কেবল ক্ষণিকের উপার্জনই পাবে। তবে এর পরিণতি মারাত্মক এবং ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে। দুর্নীতিবিরোধী কর্মকাণ্ডে সহায়তা করার জন্য আমি পিসিবির সঙ্গে একমত হয়েছি। আমি শিগগিরই ক্লাব ক্রিকেটে ফিরে আসব।

পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ করা হয়েছিল শারজিল খান ও খালিদ লতিফকে। শারজিল খান ও খালিদ লতিফ ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের হয়ে খেলার সময় পিসিবির দুর্নীতি দমন আইনের পাঁচটি কোড লঙ্ঘন করেন। যে কারণে তাদের শাস্তি দেয়া হয়েছিল।

পিসিবির দুর্নীতি দমন ইউনিটের পরিচালক লে. কর্নেল (অব.) আসিফ মাহমুদ সোমবার বলেছেন, আমরা শারজিলের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। তিনি তার কর্মের জন্য অনুশোচনা করেছেন। পিসিবি তার বিষয়টি ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখেছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সচেতন এবং খেলাকে দুর্নীতি মুক্ত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

আবারো আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে ফিরছেন শারজিল খান

আপডেট: ০৩:৪৭:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯

ক্রীড়া ডেস্ক:

নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কাছে আবেদন করেছেন পাকিস্তানের তারকা ওপেনার শারজিল খান। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে পিসিবি। এখন থেকে পেশাদার ক্রিকেট খেলতে আর কোনো বাঁধা-নিষেধ থাকল না শারজিল খানের।

পাকিস্তানের হয়ে ৪১টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে এক সেঞ্চুরি করে ১ হাজার ২১৬ রান করা শারজিল খান বলেন, আমি আমার দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড, সতীর্থ এবং ভক্ত-সমর্থকদের কাছে বিনা শর্তে ক্ষমা চাইছি। আমি ক্ষমার জন্য বোর্ডের কাছে অনুরোধ করছি এবং আশ্বাস দিচ্ছি যে, ভবিষ্যতে আরও দায়িত্বশীল হবো।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের এ ওপেনার আরও বলেন, পাকিস্তানের সব ক্রিকেটারকে পিসিবি দুর্নীতি দমন আইনকে কঠোরভাবে অনুসরণ করার জন্য স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি যে, এতে কেবল ক্ষণিকের উপার্জনই পাবে। তবে এর পরিণতি মারাত্মক এবং ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে। দুর্নীতিবিরোধী কর্মকাণ্ডে সহায়তা করার জন্য আমি পিসিবির সঙ্গে একমত হয়েছি। আমি শিগগিরই ক্লাব ক্রিকেটে ফিরে আসব।

পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ করা হয়েছিল শারজিল খান ও খালিদ লতিফকে। শারজিল খান ও খালিদ লতিফ ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের হয়ে খেলার সময় পিসিবির দুর্নীতি দমন আইনের পাঁচটি কোড লঙ্ঘন করেন। যে কারণে তাদের শাস্তি দেয়া হয়েছিল।

পিসিবির দুর্নীতি দমন ইউনিটের পরিচালক লে. কর্নেল (অব.) আসিফ মাহমুদ সোমবার বলেছেন, আমরা শারজিলের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। তিনি তার কর্মের জন্য অনুশোচনা করেছেন। পিসিবি তার বিষয়টি ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখেছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সচেতন এবং খেলাকে দুর্নীতি মুক্ত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।