• ঢাকা
  • সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৩ জুন, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ১৩ জুন, ২০২২

ওমরসানিকে ভাই বলে সম্বোধন করে যা বললেন মৌসুমী

অনলাইন ডেস্ক
[sharethis-inline-buttons]
চিত্রনায়িকা মৌসুমী।

প্রযোজক ও খলঅভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়েপরবর্তী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা চলচ্চিত্রাঙ্গনকে উত্তপ্ত করেছে।

শুক্রবারের সেই অনুষ্ঠানে জায়েদ খানকে চড় মেরে সিনেমহলে উত্তেজনা ছড়িয়ে দিলেন চিত্রনায়ক ওমরা সানী।

ঘটনাটি নিয়ে যখন বিস্মিত অনেকেই; তখন আরও বড় বোমা ফাটান সানী। অভিযোগ করলেন, বিগত চার মাস ধরে জায়েদ খান তার সুখের সংসারে ভাঙন ধরানোর চেষ্টারত। জায়েদ ত্যক্ত-বিরক্ত করে চলেছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে।

এতেই থামেননি ওমর সানী; জায়েদ খান আরও অনেক মেয়ের সংসার ধ্বংস করেছে বলেও অভিযোগ আনেন তিনি।

কিন্তু যেই মৌসুমীকে ঘিরে জায়েদ খানের সঙ্গে তুমুল দ্বন্দ্বে জড়ালেন ওমর সানী, সেই মৌসুমীই পক্ষ নিলেন জায়েদ খানের। এই ইস্যুতে তাকে জড়ানোয় ওমর সানীকে দোষারোপ করলেন নায়িকা।
স্বামীকেই একরকম আসামির কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন এ চিত্রনায়িকা।

জায়েদ খানের প্রশংসা করেছেন মৌসুমী।

একটি টিভি চ্যানেলে দেওয়া অডিওবার্তায় ওমর সানীকে ‘ভাই’ ডেকে মৌসুমী বললেন, ‘জায়েদ ভালো ছেলে।’

স্বামী ওমর সানীর অভিযোগ নিয়ে কিছুটা মনক্ষুণ্ন মৌসুমী। বলেন, এখানে জায়েদের খুব একটা দোষ আমি পাইনি। আরেকটা কথা বলতে চাই— আমাকে ছোট করার মধ্যে আমাদের… যাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করে আসছি, সেই ওমর সানী ভাই কেন এত আনন্দ পাচ্ছেন- সেটি আমি বুঝতে পারছি না। আমার কোনো সমস্যা থাকলে অবশ্যই আমার সঙ্গে সমাধান করবে, সেটিই আমি আশা করি।’

জায়েদ খানের প্রশংসা করে এ প্রিয়দর্শিনী বলেন, ‘আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি, ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। সেখানে ও আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আর ওর মধ্যে গুণ ছাড়া এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারে এমন কিছুই আমি দেখিনি। তার পর বলব— ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনই আমাকে অসম্মান করেনি।’

জায়ের বিরুদ্ধে তাকে বিরক্ত করার অভিযোগ প্রসঙ্গে এ চিত্রনায়িকা বলেন, ‘সে আমাকে বিরক্ত করছে-উত্ত্যক্ত করছে! কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে? এই জিনিসটা আমার আসলে… জানি না এটা কেন হচ্ছে। এটি যদিও একান্ত আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল।’

তার সঙ্গে আলাপ করেই সংবাদ প্রকাশ করলে ভালো হতো বলে জানান মৌসুমী।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা সাংবাদিক ভাইয়েরা একটি নিউজ পেলেই সেটি কথা না বলেই সহজভাবে লিখে দেন, এটা কাম্য নয়। একটু আলোচনা করা উচিত। যেহেতু আমার প্রসঙ্গ আসছে, আমারটা আমার কাছে জানার দরকার ছিল। তা হলে হয়তো প্রসঙ্গটি লিখতেন না। তিনি (সানী) একতরফা বলেছেন, আমিও কিছু বলেছি কিনা, অভিযোগ করেছি কিনা, জানা দরকার ছিল। সে ক্ষেত্রে বলব যে অডিওটি জরুরি। আমার নামটা এখানে যেন কোনো প্রয়োজনে–অপ্রয়োজনে না আসে।’

Sharing is caring!

[sharethis-inline-buttons]

আরও পড়ুন