ঢাকা ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চীনে ইয়াহু বন্ধের ঘোষণা

  • আপডেট: ০৪:১৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ নভেম্বর ২০২১
  • ১০

চীনে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের কারণে সর্বশেষ মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি হিসেবে দেশটিতে নিজেদের সেবা বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে ইয়াহু। কোম্পানিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চীনে ক্রমবর্ধমান বাণিজ্যিক চ্যালেঞ্জ ও আইনি পরিবেশের কারণে তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, চীনে ইয়াহু ব্যবহারকারীদের একটি বার্তা দিয়ে স্বাগত জানানো হচ্ছে। বার্তায় বলা হচ্ছে, ইয়াহুর সাইট এখন থেকে প্রবেশযোগ্য না।

কোম্পানিটি জানিয়েছে, বিশ্বের অন্যত্র ইয়াহুর সেবা চলমান ও স্বাভাবিক রয়েছে।

এর আগে গত মাসে টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট লিঙ্কডইনের সেবা চীনে বন্ধ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও নিজ দেশের বড় টেক কোম্পানিটির বিরুদ্ধে অভিযানের মাঝামাঝি পর্যায়ে রয়েছে চীন। গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকটি আইন পাস হয়েছে। ইয়াহু ও অন্য কোম্পানিগুলো এর ফলে চীনকে ঝুঁকিপূর্ণ বাজার বলে অভিহিত করছে।

এসব আইনের মধ্যে একটি হলো ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইন। ১ নভেম্বর থেকে তা কার্যকর হয়েছে। চীনের তথ্য সুরক্ষা আইন হিসেবে এতে বেশ কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে, কীভাবে তথ্য সংগ্রহ ও মজুত রাখা হবে তা সম্পর্কে নির্দেশনা এবং আইন লঙ্ঘনে বার্ষিক আয়ের ৫ শতাংশ পর্যন্ত জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইউরোপের জিডিপিআর-এর চেয়ে খুব ভিন্ন কিছু নয় চীনের আইনটি। কিন্তু চীনের রাজনীতি উল্লেখযোগ্য মাত্রায় ভিন্ন হওয়ার কারণে কোম্পানিগুলো এসব কঠোর বিধিনিষেধের ফলে বাণিজ্যে ঝুঁকি দেখছে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

ধর্ষণের মামলায় মাওলানা নাছির পাটোয়ারীকে আটক করলো র‌্যাব

চীনে ইয়াহু বন্ধের ঘোষণা

আপডেট: ০৪:১৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ নভেম্বর ২০২১

চীনে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের কারণে সর্বশেষ মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি হিসেবে দেশটিতে নিজেদের সেবা বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে ইয়াহু। কোম্পানিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চীনে ক্রমবর্ধমান বাণিজ্যিক চ্যালেঞ্জ ও আইনি পরিবেশের কারণে তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, চীনে ইয়াহু ব্যবহারকারীদের একটি বার্তা দিয়ে স্বাগত জানানো হচ্ছে। বার্তায় বলা হচ্ছে, ইয়াহুর সাইট এখন থেকে প্রবেশযোগ্য না।

কোম্পানিটি জানিয়েছে, বিশ্বের অন্যত্র ইয়াহুর সেবা চলমান ও স্বাভাবিক রয়েছে।

এর আগে গত মাসে টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট লিঙ্কডইনের সেবা চীনে বন্ধ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও নিজ দেশের বড় টেক কোম্পানিটির বিরুদ্ধে অভিযানের মাঝামাঝি পর্যায়ে রয়েছে চীন। গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকটি আইন পাস হয়েছে। ইয়াহু ও অন্য কোম্পানিগুলো এর ফলে চীনকে ঝুঁকিপূর্ণ বাজার বলে অভিহিত করছে।

এসব আইনের মধ্যে একটি হলো ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইন। ১ নভেম্বর থেকে তা কার্যকর হয়েছে। চীনের তথ্য সুরক্ষা আইন হিসেবে এতে বেশ কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে, কীভাবে তথ্য সংগ্রহ ও মজুত রাখা হবে তা সম্পর্কে নির্দেশনা এবং আইন লঙ্ঘনে বার্ষিক আয়ের ৫ শতাংশ পর্যন্ত জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইউরোপের জিডিপিআর-এর চেয়ে খুব ভিন্ন কিছু নয় চীনের আইনটি। কিন্তু চীনের রাজনীতি উল্লেখযোগ্য মাত্রায় ভিন্ন হওয়ার কারণে কোম্পানিগুলো এসব কঠোর বিধিনিষেধের ফলে বাণিজ্যে ঝুঁকি দেখছে।