ঢাকা ০৬:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা করলো স্বামী

  • আপডেট: ০১:১৩:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:

পেটানোর পর ওই নারীর মুখে জোরপূর্বক বিষ ঢেলে দেন অভিযুক্ত সুকান্ত সাভারে কারখানা ছুটির পর বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় এক নারী পোশাক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

নিহত পোশাক শ্রমিকের নাম কংকন রানী দাস। শুক্রবার সকালে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে ইউএনবি’র একটি খবরে বলা হয়েছে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে পোশাক কারখানা ছুটির পরে একটু দেরিতে বাসায় আসেন কংকন রানী দাস। এর জের ধরে স্বামী সুকান্ত তাকে পিটিয়ে আহত করে এবং জোর করে তার মুখে ঢেলে দিয়ে হত্যা করে। পরে প্রতিবেশীরা তাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে মারা যান কংকন। তিনি সাভারের পাকিজা ডায়িং অ্যান্ড পিন্টিং কারখানার অপারেটর পদে কর্মরত ছিলেন।

এঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী পলাতক রয়েছেন।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুল বলেন, “খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।“

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’র ঈদ শুভেচ্ছা

বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা করলো স্বামী

আপডেট: ০১:১৩:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:

পেটানোর পর ওই নারীর মুখে জোরপূর্বক বিষ ঢেলে দেন অভিযুক্ত সুকান্ত সাভারে কারখানা ছুটির পর বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় এক নারী পোশাক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

নিহত পোশাক শ্রমিকের নাম কংকন রানী দাস। শুক্রবার সকালে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে ইউএনবি’র একটি খবরে বলা হয়েছে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে পোশাক কারখানা ছুটির পরে একটু দেরিতে বাসায় আসেন কংকন রানী দাস। এর জের ধরে স্বামী সুকান্ত তাকে পিটিয়ে আহত করে এবং জোর করে তার মুখে ঢেলে দিয়ে হত্যা করে। পরে প্রতিবেশীরা তাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে মারা যান কংকন। তিনি সাভারের পাকিজা ডায়িং অ্যান্ড পিন্টিং কারখানার অপারেটর পদে কর্মরত ছিলেন।

এঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী পলাতক রয়েছেন।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুল বলেন, “খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।“