ঢাকা ০৫:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবারো অবস্থান কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের কমিটিতে পদবঞ্চিতরা

  • আপডেট: ০৪:৩৯:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০১৯

নতুনেরকথা ডেস্ক:

দাবি আদায় ও হামলার বিচার না পাওয়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে পদবঞ্চিতরা ও প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতারা রাতদিন টিএসসির সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে।

তারা বলেছে, তাদের দাবি আদায় ও তাদের ওপর দুই দফা করা হামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করবে।

রোববার দিবাগত রাত একটায় প্রায় অর্ধশত নেতা রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নেয়।

তাদের অবস্থানের বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের গত কমিটির কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন বলেন, আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা এখানে অবস্থান করব। আমাদের দাবি ও আমাদের ওপর হামলার বিচার করার যে সময়সীমা বলা হয়েছিল সেটি অনেক আগেই পেরিয়ে গেছে। কিন্তু বিচার হয় নি।

রাকিব বলেন, আমাদের দাবি ছিল, কমিটি পুনর্গঠন করতে হবে, বিতর্কিতদের কমিটি থেকে বাদ দিতে হবে এবং ছাত্রলীগের জন্য যারা শ্রম দিয়েছে সেইসব যোগ্যদের মূল্যায়ন করতে হবে। আমাদের দাবি না মেনে সেই কমিটি নিয়েই ধানমন্ডি ৩২ এ ফুল দিতে যাবে। তারমানে তারা এই কমিটিকেই বৈধতা দিচ্ছে। আমরা এই প্রহসনের বিচার না হওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান করব।

এর আগে ১৩ মে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কমিটিতে স্থান না পাওয়া (পদবঞ্চিত) নেতারা হামলা শিকার হয়েছিলেন। কমিটি ঘোষিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরপরই এই কমিটিতে অছাত্র, ছাত্রদল, বিবাহিত, মাদক ব্যবসায়ী, বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন তারা।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’র ঈদ শুভেচ্ছা

আবারো অবস্থান কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের কমিটিতে পদবঞ্চিতরা

আপডেট: ০৪:৩৯:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০১৯

নতুনেরকথা ডেস্ক:

দাবি আদায় ও হামলার বিচার না পাওয়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে পদবঞ্চিতরা ও প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতারা রাতদিন টিএসসির সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে।

তারা বলেছে, তাদের দাবি আদায় ও তাদের ওপর দুই দফা করা হামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করবে।

রোববার দিবাগত রাত একটায় প্রায় অর্ধশত নেতা রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নেয়।

তাদের অবস্থানের বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের গত কমিটির কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন বলেন, আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা এখানে অবস্থান করব। আমাদের দাবি ও আমাদের ওপর হামলার বিচার করার যে সময়সীমা বলা হয়েছিল সেটি অনেক আগেই পেরিয়ে গেছে। কিন্তু বিচার হয় নি।

রাকিব বলেন, আমাদের দাবি ছিল, কমিটি পুনর্গঠন করতে হবে, বিতর্কিতদের কমিটি থেকে বাদ দিতে হবে এবং ছাত্রলীগের জন্য যারা শ্রম দিয়েছে সেইসব যোগ্যদের মূল্যায়ন করতে হবে। আমাদের দাবি না মেনে সেই কমিটি নিয়েই ধানমন্ডি ৩২ এ ফুল দিতে যাবে। তারমানে তারা এই কমিটিকেই বৈধতা দিচ্ছে। আমরা এই প্রহসনের বিচার না হওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান করব।

এর আগে ১৩ মে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কমিটিতে স্থান না পাওয়া (পদবঞ্চিত) নেতারা হামলা শিকার হয়েছিলেন। কমিটি ঘোষিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরপরই এই কমিটিতে অছাত্র, ছাত্রদল, বিবাহিত, মাদক ব্যবসায়ী, বিতর্কিতদের বাদ দেওয়ার দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন তারা।