ঢাকা ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড

  • আপডেট: ০৭:৪৪:৫৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০১৯
  • ১২

অনলাইন ডেস্ক:

পাবনার ঈশ্বরদীতে ১৯৯৪ সালে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে গুলি ও বোমা হামলার ঘটনায় করা মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ২৫ জনকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। আর ১৩ জনকে দেওয়া হয়েছে ১০ বছর করে কারাদণ্ড।

পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আজ বুধবার বেলা ১২টার দিকে এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।

১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে ট্রেনমার্চ করার সময় ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে তখনকার বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনের বগি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়।

তবে ওই ঘটনায় প্রাণে বেঁচে যান বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। হামলার ঘটনায় রেলওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে ১৩৫ জনকে আসামি করে মামলা করলেও বিএনপির আমলে তদন্ত এগোয়নি। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে তদন্ত গতি পায়। তদন্ত শেষে পুলিশ ৫২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড

আপডেট: ০৭:৪৪:৫৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:

পাবনার ঈশ্বরদীতে ১৯৯৪ সালে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে গুলি ও বোমা হামলার ঘটনায় করা মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ২৫ জনকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। আর ১৩ জনকে দেওয়া হয়েছে ১০ বছর করে কারাদণ্ড।

পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আজ বুধবার বেলা ১২টার দিকে এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।

১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে ট্রেনমার্চ করার সময় ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে তখনকার বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনের বগি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়।

তবে ওই ঘটনায় প্রাণে বেঁচে যান বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। হামলার ঘটনায় রেলওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে ১৩৫ জনকে আসামি করে মামলা করলেও বিএনপির আমলে তদন্ত এগোয়নি। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে তদন্ত গতি পায়। তদন্ত শেষে পুলিশ ৫২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়।