ঢাকা ০৬:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রার্থী রেজাউল করিম মিন্টু

  • আপডেট: ১০:১২:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার:

মহান মুক্তিযুদ্ধে হাজিগঞ্জ-শাহরাস্তির অন্যতম সংগঠক, তৎকালিন শাহরাস্তি থানা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় বহুবার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, শাহরাস্তি থানা প্রতিষ্ঠার প্রস্তাবক, শাহরাস্তির জনমানুষের কিংবদন্তি নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রুস্তম আলীর জ্যেষ্ঠ পুত্র মোঃ রেজাউল করিম মিন্টু আসন্ন শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি পদ-প্রার্থী।

তিনি ১৯৭৬ সাল থেকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য হয়ে রাজনীতির যাত্রা শুরু করেন। পিতার পদাংক অনুস্মরণ করে সামাজিক ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকাসহ অসহায়, নিরীহ মানুষের পাশে থেকে নিরন্তর কাজ করে ইতোমধ্যেই জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন তিনি।

শাহরাস্তি পৌর আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক হিসেবে পৌরবাসীকে সম্মেলনের মাধ্যমে একটি স্বচ্ছ পূর্ণাঙ্গ কমিটি উপহার দিয়েছেন। পরবর্তীতে আবারও তিনি পৌর আওয়ামীলীগের আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন। উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান কমিটির অন্যতম সদস্য, বঙ্গবন্ধু পরিষদ শাহরাস্তি উপজেলা কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক উপ-কমিটির অন্যতম সদস্য।

মহান মুক্তিযুদ্ধের জীবন্ত কিংবদন্তি ও ১নং সেক্টর কমান্ডার জননেতা মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, এমপি’র প্রতিটি নির্বাচনে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। শাহরাস্তি উপজেলার প্রতিটি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করার ক্ষেত্রে অনন্য অবদান রেখেছেন। রাজনীতিতে পরীক্ষিত ও সর্বজন স্বীকৃত এক পরিবারের সদস্য তিনি। নেতা-কর্মীবান্ধব, যুগোপযোগী ও উপজেলা সদরে সক্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে তাঁর গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে উপজেলা ব্যাপী। তাই উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি পদে প্রার্থীতা করতে চান তিনি।

সন্মানিত কাউন্সিলরদের সমর্থন নিয়ে আসন্ন কাউন্সিলে তিনি সভাপতি পদে নির্বাচিত হতে চান। আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক কাঠামো সুদৃঢ় ও গতিশীল করার জন্য একজন সৎ, নিষ্ঠাবান, দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে নির্বাচিত করার উদ্বার্ত আহবান জানান তিনি। স্থানিয় সংসদ সদস্য তথা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে যোগ্য ব্যক্তির বিকল্প নেই। দীর্ঘদিনের অবহেলা আর অবজ্ঞার বাঁধ ভেঙ্গে এবার নতুনত্ব সৃষ্টিতে কাউন্সিলরদের ভূমিকা স্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে আশা করেন।

তাই, উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃণমূল পর্যায়ের সকল কাউন্সিলরদের সদয় সহানুভূতি ও সহযোগিতা তিনি আন্তরিকভাবে কামনা করছেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি’র ঈদ শুভেচ্ছা

শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রার্থী রেজাউল করিম মিন্টু

আপডেট: ১০:১২:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার:

মহান মুক্তিযুদ্ধে হাজিগঞ্জ-শাহরাস্তির অন্যতম সংগঠক, তৎকালিন শাহরাস্তি থানা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় বহুবার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, শাহরাস্তি থানা প্রতিষ্ঠার প্রস্তাবক, শাহরাস্তির জনমানুষের কিংবদন্তি নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম রুস্তম আলীর জ্যেষ্ঠ পুত্র মোঃ রেজাউল করিম মিন্টু আসন্ন শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি পদ-প্রার্থী।

তিনি ১৯৭৬ সাল থেকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য হয়ে রাজনীতির যাত্রা শুরু করেন। পিতার পদাংক অনুস্মরণ করে সামাজিক ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকাসহ অসহায়, নিরীহ মানুষের পাশে থেকে নিরন্তর কাজ করে ইতোমধ্যেই জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন তিনি।

শাহরাস্তি পৌর আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক হিসেবে পৌরবাসীকে সম্মেলনের মাধ্যমে একটি স্বচ্ছ পূর্ণাঙ্গ কমিটি উপহার দিয়েছেন। পরবর্তীতে আবারও তিনি পৌর আওয়ামীলীগের আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন। উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান কমিটির অন্যতম সদস্য, বঙ্গবন্ধু পরিষদ শাহরাস্তি উপজেলা কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক উপ-কমিটির অন্যতম সদস্য।

মহান মুক্তিযুদ্ধের জীবন্ত কিংবদন্তি ও ১নং সেক্টর কমান্ডার জননেতা মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, এমপি’র প্রতিটি নির্বাচনে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। শাহরাস্তি উপজেলার প্রতিটি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করার ক্ষেত্রে অনন্য অবদান রেখেছেন। রাজনীতিতে পরীক্ষিত ও সর্বজন স্বীকৃত এক পরিবারের সদস্য তিনি। নেতা-কর্মীবান্ধব, যুগোপযোগী ও উপজেলা সদরে সক্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে তাঁর গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে উপজেলা ব্যাপী। তাই উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি পদে প্রার্থীতা করতে চান তিনি।

সন্মানিত কাউন্সিলরদের সমর্থন নিয়ে আসন্ন কাউন্সিলে তিনি সভাপতি পদে নির্বাচিত হতে চান। আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক কাঠামো সুদৃঢ় ও গতিশীল করার জন্য একজন সৎ, নিষ্ঠাবান, দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে নির্বাচিত করার উদ্বার্ত আহবান জানান তিনি। স্থানিয় সংসদ সদস্য তথা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে যোগ্য ব্যক্তির বিকল্প নেই। দীর্ঘদিনের অবহেলা আর অবজ্ঞার বাঁধ ভেঙ্গে এবার নতুনত্ব সৃষ্টিতে কাউন্সিলরদের ভূমিকা স্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে আশা করেন।

তাই, উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃণমূল পর্যায়ের সকল কাউন্সিলরদের সদয় সহানুভূতি ও সহযোগিতা তিনি আন্তরিকভাবে কামনা করছেন।