ঢাকা ০৮:০০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে : মির্জা ফখরুল

  • আপডেট: ০২:০৭:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৯
  • ১৩

অনলাইন ডেস্ক:

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে উচ্চাভিলাষী বলে মন্তব্য করে বিএনপির পক্ষ থেকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে।

আজ শুক্রবার বিকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। বাজেটের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে বিএনপি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

বাজেট প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে গণমানুষের কোনও আগ্রহ নেই। বছর শেষে এই বাজেট কাটছাঁট করা হয়। এটা উচ্চাভিলাষী বাজেট।

বাজেটে আরও ঘাটতি বাড়বে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাজেটের স্লোগান, ‘সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের।’ আসলে এটা তাদের (আওয়ামী লীগ), একমাত্র তাদের। এটা জনগণের বুঝতে কোনও সমস্যা হচ্ছে না।

অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে : মির্জা ফখরুল

আপডেট: ০২:০৭:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে উচ্চাভিলাষী বলে মন্তব্য করে বিএনপির পক্ষ থেকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে।

আজ শুক্রবার বিকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। বাজেটের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে বিএনপি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

বাজেট প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে গণমানুষের কোনও আগ্রহ নেই। বছর শেষে এই বাজেট কাটছাঁট করা হয়। এটা উচ্চাভিলাষী বাজেট।

বাজেটে আরও ঘাটতি বাড়বে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বাজেটে সরকারের ব্যয় করার উচ্চাভিলাষ থাকলেও আয় করার সামর্থ্য কমে গেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাজেটের স্লোগান, ‘সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের।’ আসলে এটা তাদের (আওয়ামী লীগ), একমাত্র তাদের। এটা জনগণের বুঝতে কোনও সমস্যা হচ্ছে না।

অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।