ঢাকা ১০:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবিতে ২য় শিফটের কর্মবিরতি

  • আপডেট: ০২:২২:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ অগাস্ট ২০১৯
  • ১২

ওমর ফারুক সাইম॥
চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবিতে শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করছে। সোমবার (৫ আগষ্ট) চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায় অবস্থিত চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে কর্মবিরতি পালন করতে দেখা গেছে ইন্সটিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের। জানা যায়, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, মনোটেকনিক ইনস্টিটিউট ও টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে চলমান দ্বিতীয় শিফটের সম্মানী ভাতার সমস্যা নিরসনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। ২য় শিফটের সম্মানী ভাতার সমস্যা নিরসনে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতি, বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক পরিষদ ও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন কর্মচারী সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট শাখার যৌথ উদ্যোগে এ কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দুপুর ২টা থেকে দ্বিতীয় শিফটের সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। এতে করে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি সহ দ্বিতীয় শিফটের সকল পর্বের ক্লাস গ্রহণ ও কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। যদিও পরবর্তীতে ৩ আগষ্ট থেকে ২য় শিফটের ১ম পর্বের ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে কিন্তু ক্লাস গ্রহনসহ অনান্য সকল কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে চাঁপইতে।
৫ আগষ্ট (সোমবার) দুপুরে কর্মবিরতিতে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি ইঞ্জিঃ উত্তম কুমার দেবনাথ বলেন, ‘শিক্ষক কর্মচারীদের দ্বিতীয় শিফটের শিক্ষা কার্যক্রমে কোন জনবল বৃদ্ধি করা হয়নি। আমরা সরকারের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের পে-স্কেল অনুসারে ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত মূল বেতনের ৫০% হারে সম্মানী ভাতা পেয়েছিলাম। কিন্তু গত বছরের জুলাই থেকে দ্বিতীয় শিফটের আদেশ জারির মাধ্যমে তা ২০১৯ স্কেলের মূল বেসিকের ৫০% নির্ধারণ করা হয়। নতুন এই আদেশ অমানবিক। আমরা আর দ্বিতীয় শিফট চাই না।’

এসময় দাবি আদায়ে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক পরিষদ চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি ইঞ্জিঃ সুব্রত সাহা বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষা ব্যবস্থায় ১ম ও ২য় শিফটের নতুন টেকনোজলির চালু, গ্রুপ সংখ্যা বৃদ্ধি, দুই শিফটের নামে চার শিফট, ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি এবং শিক্ষক-কর্মচারী স্বল্পতার জন্য নিয়মিত শিফট পরিচালনা ব্যাহত হচ্ছে। ২য় শিফটের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য আলাদা শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ এখন সময়ের দাবি। তবে সরকার নতুন করে নিয়োগ না দিয়ে বর্তমান শিক্ষক-কর্মচারীদের দিয়ে ২য় শিফট কার্যক্রম পরিচালনা করলে মূল বেসিকের সমপরিমাণ (১০০%) দিতে হবে।’

এসময় বাংলাদেশ পলিটেকনিক কর্মচারী সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি হিসাবরক্ষক মোঃ আবু সালেহ বলেন, আমরা আমাদের দাবী আদায়ে কর্মবিরতি পালন করছি। আমাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা ২ শিফটের কর্মবিরতি পালন করে যাব।
এসময় চাঁপই এর সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা কর্মবিরতিতে অংশগ্রহণ করে।
প্রসংগতঃ গত ১ আগষ্ট শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবীতে ২শিফটের কর্মবিরতি পালন করছে চাঁপই এর শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা। শিক্ষকদের কর্মবিরতির ফলে চার সেশনের প্রায় ২ হাজার শিক্ষার্থীর পড়ালেখা বন্ধ রয়েছে চাঁপইতে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

ধর্ষণের মামলায় মাওলানা নাছির পাটোয়ারীকে আটক করলো র‌্যাব

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবিতে ২য় শিফটের কর্মবিরতি

আপডেট: ০২:২২:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ অগাস্ট ২০১৯

ওমর ফারুক সাইম॥
চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবিতে শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করছে। সোমবার (৫ আগষ্ট) চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায় অবস্থিত চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে কর্মবিরতি পালন করতে দেখা গেছে ইন্সটিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের। জানা যায়, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, মনোটেকনিক ইনস্টিটিউট ও টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে চলমান দ্বিতীয় শিফটের সম্মানী ভাতার সমস্যা নিরসনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। ২য় শিফটের সম্মানী ভাতার সমস্যা নিরসনে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতি, বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক পরিষদ ও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন কর্মচারী সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট শাখার যৌথ উদ্যোগে এ কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দুপুর ২টা থেকে দ্বিতীয় শিফটের সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। এতে করে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি সহ দ্বিতীয় শিফটের সকল পর্বের ক্লাস গ্রহণ ও কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। যদিও পরবর্তীতে ৩ আগষ্ট থেকে ২য় শিফটের ১ম পর্বের ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে কিন্তু ক্লাস গ্রহনসহ অনান্য সকল কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে চাঁপইতে।
৫ আগষ্ট (সোমবার) দুপুরে কর্মবিরতিতে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি ইঞ্জিঃ উত্তম কুমার দেবনাথ বলেন, ‘শিক্ষক কর্মচারীদের দ্বিতীয় শিফটের শিক্ষা কার্যক্রমে কোন জনবল বৃদ্ধি করা হয়নি। আমরা সরকারের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের পে-স্কেল অনুসারে ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত মূল বেতনের ৫০% হারে সম্মানী ভাতা পেয়েছিলাম। কিন্তু গত বছরের জুলাই থেকে দ্বিতীয় শিফটের আদেশ জারির মাধ্যমে তা ২০১৯ স্কেলের মূল বেসিকের ৫০% নির্ধারণ করা হয়। নতুন এই আদেশ অমানবিক। আমরা আর দ্বিতীয় শিফট চাই না।’

এসময় দাবি আদায়ে বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক পরিষদ চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি ইঞ্জিঃ সুব্রত সাহা বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষা ব্যবস্থায় ১ম ও ২য় শিফটের নতুন টেকনোজলির চালু, গ্রুপ সংখ্যা বৃদ্ধি, দুই শিফটের নামে চার শিফট, ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি এবং শিক্ষক-কর্মচারী স্বল্পতার জন্য নিয়মিত শিফট পরিচালনা ব্যাহত হচ্ছে। ২য় শিফটের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য আলাদা শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ এখন সময়ের দাবি। তবে সরকার নতুন করে নিয়োগ না দিয়ে বর্তমান শিক্ষক-কর্মচারীদের দিয়ে ২য় শিফট কার্যক্রম পরিচালনা করলে মূল বেসিকের সমপরিমাণ (১০০%) দিতে হবে।’

এসময় বাংলাদেশ পলিটেকনিক কর্মচারী সমিতি চাঁদপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সভাপতি হিসাবরক্ষক মোঃ আবু সালেহ বলেন, আমরা আমাদের দাবী আদায়ে কর্মবিরতি পালন করছি। আমাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা ২ শিফটের কর্মবিরতি পালন করে যাব।
এসময় চাঁপই এর সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা কর্মবিরতিতে অংশগ্রহণ করে।
প্রসংগতঃ গত ১ আগষ্ট শতভাগ সম্মানী ভাতার দাবীতে ২শিফটের কর্মবিরতি পালন করছে চাঁপই এর শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা। শিক্ষকদের কর্মবিরতির ফলে চার সেশনের প্রায় ২ হাজার শিক্ষার্থীর পড়ালেখা বন্ধ রয়েছে চাঁপইতে।