ঢাকা ১১:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় চলাচলের পথে বাঁশের বেড়া, অবরুদ্ধ ৩০ পরিবার

  • আপডেট: ০৯:০৪:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

কচুয়া উপজেলার ৪নং পালাখাল মডেল ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামের ভূইয়া বাড়ি, মােল্লা বাড়ী, প্রধানীযা বাড়ী ও কালিসা বাড়ীর দীর্ঘদিনের পুরনো গ্রামীণ রাস্তায় জোরপূর্বক বাঁশের বেড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালী পরিবারের বিরুদ্ধে।

এতে ৪টি বাড়ির ৩০টি পরিবারের ২শতাধিক মানুষ চলাচল করতে পারছেন না। বাঁশের বেড়া খুলে দিয়ে মানুষের চলাচলের ব্যবস্থা করার জন্য একই বাড়ির মৃত ইব্রাহিমের ছেলে ভুক্তভোগী আব্দুল মালেক বাদী হয়ে প্রতিবেশী মৃত খোরশেদ আলম পাটোয়ারী ছেলে আব্দুল করিম পাটোয়ারী ও শাহজাহান পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে ১৮ অক্টোবর সোমবারে কচুয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মেঘদাইর গ্রামের ভুঁইয়া বাড়ী, মােল্লা বাড়ী, প্রধানীয়া বাড়ী ও কালিসা বাড়ী এই ০৪ (চার) বাড়ীর মানুষ দীর্ঘ দিন যাবৎ এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে আসছে উল্লেখিত বিবাদী শাহজাহান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারী এর সম্পত্তি রাস্তার পাশে থাকায় জোর পূর্বক ভাবে চলাচলের ৪ বাড়ীর রান্তায় বেড়া দিয়ে যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দিয়েছে।

বর্তমানে এই চার বাড়ীর লোকজনের চলাচলের কোন রাস্তা না থাকায় বাড়ীর মানুষ গৃহবন্দী হয়ে পরে আছে। স্কুল-মাদ্রাসায় কলেজের ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া বন্ধ হয়ে পরেছে। বাড়ির চলাচলের রাস্তা বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করার বিষয়ে এলাকার গন্যমান্য লােকদের কে অবগত করিলে শাহাজান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারীরা সীমংসা করার জন্য বললে এলাকার গন্যমান্য লােকদের কথা কর্নপাত করে না তারা।

স্থানীয় মোঃ মালেক ভূঁইয়া, খলিলুর রহমান, হুমায়ুন কবির, আলী আশ্বাদ, সাদেক ব্যাপারীসহ ভুক্তভোগী বাসিন্দারা বলেন, আমরা এই রাস্তা দিয়ে প্রায় শত বছর ধরে চলাচল করে আসছি। রাস্তার মালিকানা দাবি শাহাজান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারী সোমবার (১৮ অক্টোবর) বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে চলাচল বন্ধ করে দেন। এখন আমরা ৪ বাড়ির ৩০টি পরিবারের প্রায় দুই শতাধিক লোকজন গৃহবন্দি হয়ে পড়েছি। এটি আমাদের একমাত্র বাড়ির লোকজনের চলাচলের রাস্তা অন্য কোন বিকল্প রাস্তা নেই।

বর্তমানে বাড়ির লোকজন চরম দুর্ভোগের মধ্যে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছি। চলাচলের রাস্তা বেড়া খুলে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রাস্তায় বেড়া দানকারি আব্দুল করিম পাটোয়ারী বলেন, রাস্তার জায়গাটি আমাদের জমির মধ্যে পড়েছে তাই আমরা জায়গাটি বাঁশের বেড়া দিয়ে দখলে নিয়েছি। এতদিন যাবত আমরা রাস্তার জায়গা দিয়েছি, কিন্তু এখন আর দিবো না। যদি চলাচলের রাস্তা নিতে হয় তাহলে আমাদের সাথে সমন্বয় করে নিতে হবে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

ধর্ষণের মামলায় মাওলানা নাছির পাটোয়ারীকে আটক করলো র‌্যাব

কচুয়ায় চলাচলের পথে বাঁশের বেড়া, অবরুদ্ধ ৩০ পরিবার

আপডেট: ০৯:০৪:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

কচুয়া উপজেলার ৪নং পালাখাল মডেল ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামের ভূইয়া বাড়ি, মােল্লা বাড়ী, প্রধানীযা বাড়ী ও কালিসা বাড়ীর দীর্ঘদিনের পুরনো গ্রামীণ রাস্তায় জোরপূর্বক বাঁশের বেড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালী পরিবারের বিরুদ্ধে।

এতে ৪টি বাড়ির ৩০টি পরিবারের ২শতাধিক মানুষ চলাচল করতে পারছেন না। বাঁশের বেড়া খুলে দিয়ে মানুষের চলাচলের ব্যবস্থা করার জন্য একই বাড়ির মৃত ইব্রাহিমের ছেলে ভুক্তভোগী আব্দুল মালেক বাদী হয়ে প্রতিবেশী মৃত খোরশেদ আলম পাটোয়ারী ছেলে আব্দুল করিম পাটোয়ারী ও শাহজাহান পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে ১৮ অক্টোবর সোমবারে কচুয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মেঘদাইর গ্রামের ভুঁইয়া বাড়ী, মােল্লা বাড়ী, প্রধানীয়া বাড়ী ও কালিসা বাড়ী এই ০৪ (চার) বাড়ীর মানুষ দীর্ঘ দিন যাবৎ এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে আসছে উল্লেখিত বিবাদী শাহজাহান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারী এর সম্পত্তি রাস্তার পাশে থাকায় জোর পূর্বক ভাবে চলাচলের ৪ বাড়ীর রান্তায় বেড়া দিয়ে যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দিয়েছে।

বর্তমানে এই চার বাড়ীর লোকজনের চলাচলের কোন রাস্তা না থাকায় বাড়ীর মানুষ গৃহবন্দী হয়ে পরে আছে। স্কুল-মাদ্রাসায় কলেজের ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া বন্ধ হয়ে পরেছে। বাড়ির চলাচলের রাস্তা বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করার বিষয়ে এলাকার গন্যমান্য লােকদের কে অবগত করিলে শাহাজান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারীরা সীমংসা করার জন্য বললে এলাকার গন্যমান্য লােকদের কথা কর্নপাত করে না তারা।

স্থানীয় মোঃ মালেক ভূঁইয়া, খলিলুর রহমান, হুমায়ুন কবির, আলী আশ্বাদ, সাদেক ব্যাপারীসহ ভুক্তভোগী বাসিন্দারা বলেন, আমরা এই রাস্তা দিয়ে প্রায় শত বছর ধরে চলাচল করে আসছি। রাস্তার মালিকানা দাবি শাহাজান পাটোয়ারী ও আব্দুল করিম পাটোয়ারী সোমবার (১৮ অক্টোবর) বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে চলাচল বন্ধ করে দেন। এখন আমরা ৪ বাড়ির ৩০টি পরিবারের প্রায় দুই শতাধিক লোকজন গৃহবন্দি হয়ে পড়েছি। এটি আমাদের একমাত্র বাড়ির লোকজনের চলাচলের রাস্তা অন্য কোন বিকল্প রাস্তা নেই।

বর্তমানে বাড়ির লোকজন চরম দুর্ভোগের মধ্যে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছি। চলাচলের রাস্তা বেড়া খুলে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রাস্তায় বেড়া দানকারি আব্দুল করিম পাটোয়ারী বলেন, রাস্তার জায়গাটি আমাদের জমির মধ্যে পড়েছে তাই আমরা জায়গাটি বাঁশের বেড়া দিয়ে দখলে নিয়েছি। এতদিন যাবত আমরা রাস্তার জায়গা দিয়েছি, কিন্তু এখন আর দিবো না। যদি চলাচলের রাস্তা নিতে হয় তাহলে আমাদের সাথে সমন্বয় করে নিতে হবে।