হাসপাতালের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলেকে। কোলন টিউমার ছিল, অস্ত্রোপচার করে তা সরিয়ে ফেলার পর বর্তমানে আইসিইউতে আছেন তিনি।সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে এই অস্ত্রোপচার হয়েছে ৮০ বছর বয়সী পেলের। হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে- জ্ঞান ফিরেছে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তির, এখন শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

পেলে যে সুস্থ আছেন, তা তিনিই পোস্ট করে জানিয়েছেন নেটমাধ্যমে। ইনস্টাগ্রামে মজা করে লিখেছেন, ‘বন্ধুরা, আমি প্রতিদিন আরও সুস্থ হয়ে উঠছি। আবার খেলতে নামব। তবে তার আগে আরও কিছু দিন সময় লাগবে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে।’

হাসপাতালে সময়টা কীভাবে কাটাচ্ছেন, জানিয়ে পেলে বলেন, ‘এই কদিন এখানে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছি আর বিশ্রাম নিচ্ছি। যারা আমাকে ভালোবেসে খোঁজ নিয়েছেন, তাদের সবাইকে আবারও ধন্যবাদ। আমরা খুব দ্রুত আবারও একসঙ্গে হব।’

গত ৩১ আগস্ট থেকেই হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন পেলে। রুটিন টেস্টে তার শরীরে ধরা পড়ে টিউমার। তবে সেটা ক্যানসার কিনা, জানা যায়নি।

গত কয়েক বছর ধরেই শরীরটা ভালো যাচ্ছে না পেলের। ২০১৫ সালে ছয় মাসের মধ্যে দুইবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। এরপর প্রোস্টেটের অস্ত্রোপচার করান। ২০১৯ সালে মূত্রতন্ত্রের সংক্রমণের কারণে বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে থাকতে হয়েছিল ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তিকে।

পেলে ব্রাজিলের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা এবং তিনবারের বিশ্বকাপজয়ী ফুটবলার। চারটি বিশ্বকাপে গোল করা চারজন ফুটবলারের মধ্যে একজন তিনি।

Sharing is caring!