পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে পৌঁছেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন মিচেল স্টার্ক, ম্যাথু ওয়েডরা।

বিমানবন্দর থেকে সোজা টিম হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে চলে যাবেন সফরকারীরা। সেখানে তিনদিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে অনুশীলনের সুযোগ পাবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। তার আগে অবশ্য দুই দফায় করোনাভাইরাস পরীক্ষায় নেগেটিভ হতে হবে।

৩২ সদস্যের দলে নাম নেই স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নারের মতো তারকা ক্রিকেটারের। চোট ও ব্যক্তিগত কারণ মিলিয়ে স্মিথ, ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্নাস লাবুশেন, মার্কাস স্টয়নিস ও প্যাট কামিন্সরা খেলবেন না বলে জানিয়েছেন। বাংলাদেশে আসার আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের দলের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সবশেষ মুখোমুখি হয়েছে ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে। ২০২০ সালের সূচিতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল অজিদের। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সে সফর বাতিল করে অস্ট্রেলিয়া। বাণিজ্যিক কারণে এর আগে বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ খেলতে অনাগ্রহ দেখায় তারা। তবুও ২০১৭ সালে একবার টেস্ট সিরিজ খেলতে এ দেশে এসেছিল অস্ট্রেলিয়া। দীর্ঘ ৪ বছর পর আবার বাঘের ডেরায় অজিরা।

আগামী ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের টি টোয়েন্টি খেলবে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও সফরকারি অস্ট্রেলিয়া । প্রতিটি ম্যাচই শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়।

বাংলাদেশ সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াড-

অ্যাশটন অ্যাগার, ওয়েস অ্যাগার, জেসন বেহরেনডর্ফ, অ্যালেক্স কেয়ারি, ড্যানিয়েল ক্রিস্টিয়ান, জশ হেইজেলউড, মোইজেস হেনরিকেস, মিচল মার্শ, বেন ম্যাকডারমট, রাইলি মেরেডিথ, জশ ফিলিপি, মিচেল স্টার্ক, মিচেল সোয়েপসন, অ্যাশটন টার্নার, অ্যান্ড্রু টাই, ম্যাথু ওয়েড ও অ্যাডাম জ্যাম্পা।

Sharing is caring!