সারাদেশে তীব্র ও ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ। । দেশের কিছু অঞ্চলের উপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে তীব্র তাপদাহ। এই গরমে রোজা রেখে শরীর সুস্থ রাখাই এখন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গরমে যেসব স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া উচিত চলুন জেনে নেওয়া যাক।

ডাব : গরম কালের দুর্দান্ত পানীয় ডাব।এটি রিহাইড্রেশনের জন্য একটি দুর্দান্ত পানীয় এবং আমাদের জন্য শক্তি এবং ভিটামিন সি, পটাসিয়াম, সোডিয়াম, ক্লোরাইড এবং কার্বোহাইড্রেট জাতীয় প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করে। এতে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে এবং বার্ধক্য রোধেও এর ভূমিকা অনস্বীকার্য।

তরমুজ : গরমের অন্যতম একটি রসালো ফল হল তরমুজ। এর মধ্যে ৯০% জলীয় অংশ থাকে, ফলে এটি শরীরকে আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। তরমুজে সিট্রুলাইন নামের অ্যামিনো অ্যাসিড রয়েছে যা শরীরে একটি অ্যামিনো অ্যাসিড আর্জিনিনে রূপান্তরিত হয়। গবেষণা বলছে যে এই আর্জিনিন হার্ট ভালো রাখতে সাহায্য করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করে।

লেবুর শরবত : সবচেয়ে সহজলভ্য পানীয় হলো লেবুর শরবত। লেবু, লবণ আর সামান্য পানি দিয়েই এই পানীয় তৈরি হয়ে যায়। চাইলে স্বাদ বাড়াতে একটু চিনি বা মধুও মিশিয়ে নেওয়া যেতে পারে। লেবু ভিটামিন সি, ভিটামিন বি ৬ এবং পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন এবং ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ।

মাঠা : একে কোথাও ঘোল বলা হয়, আবার কোথাও মাঠা বলা হয়। দই, পানি ও অল্প একটু লবণ দিয়ে তৈরি এই পানীয় পছন্দ করেন অনেকেই। এটি শুধু শরীর আর্দ্র রাখে তা নয়। এটি খাবার হজম করাতেও সাহায্য করে।

আম : আমকে বলা হয় ফলের রাজা। আমের মধ্যেও ৮৩% পানি আছে, তাই এটি গরমের সেরা ফল। আম পোড়া শরবত, কাঁচা আমের চাটনি বা পাকা আমের স্মুদি, নানা ভাবে আম খাওয়া যেতে পারে।

Sharing is caring!