২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ, বগুড়ায় ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুগন্ধি গ্রামের এসএম মনজুর আহমেদ খানের মেয়ে ফাইরুজ তাবাস্সুম। এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণের ফলাফল ঘোষণার পর ফাইরুজ তাবাসসুম এর পরিবার ও সুগন্ধি গ্রামজুড়ে বইছে খুশির বন্যা।

ফাইরুজ তাবাসসুম উপজেলার সুগন্ধি গ্রামের এসএম মনজুর আহমেদ খান ও আমিনা আহমেদ দম্পতির মেয়ে।

অদম্য ইচ্ছাশক্তিই সফলতার পথ দেখিয়েছে ফাইরুজ তাবাসসুমকে। মেধার জোরে সব বাধা জয় করে মেডিকেলে পড়ার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

ফাইরুজ তাবাসসুম ছোটবেলা থেকেই অত্যন্ত মেধাবী। প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা, জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন এ প্লাস পেয়ে সাফল্যের সাথে উর্ত্তীণ হয়েছে।

মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় গর্বিত তার বিদ্যাপীঠ সিদ্ধেশ্বরী গালস কলেজ, শিক্ষক ও এলাকার লোকজন।

এসএম মনজুর আহমেদ খান বলেন, তাসলিমা ছোটবেলা থেকেই মেধাবী। সে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা, জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় বৃত্তিসহ গোল্ডেন এ প্লাস পেয়ে সাফল্যের সাথে উর্ত্তীণ হয়েছে।

ফল প্রকাশের পর থেকেই আত্মীয়-স্বজন থেকে শুরু করে শিক্ষক, সহপাঠী ও এলাকাবাসীর শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন ফাইরুজ তাবাস্সুম। এতে আপ্লুত তার বাবা-মা। ফাইরুজ তাবাস্সুম এর মা আমিনা আহমেদ বলেন, আমার মেয়ে মানবিক চিকিৎসক হোক, এটিই আমার চাওয়া।

ফাইরুজ তাবাস্সুম বলেন, এই সাফল্যের পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান আমার মায়ের। ডাক্তার হয়ে দেশের মানুষের সেবা করতে চাই। খুবই আনন্দ লাগছে, ছোটকালের স্বপ্ন যেন বাস্তবায়নের পথে। এ সুযোগ পাওয়ার পেছনে আমাদের শিক্ষকদের সঠিক দিকনির্দেশনা ছিল। আমি সকলের দোয়াপ্রার্থী।

Sharing is caring!