সুচিত্রা সেন। বাংলা চলচ্চিত্রের প্রভাবশালী নাম। যতদিন অভিনয়ে ছিলেন মাতিয়ে গেছেন সময়টা। উত্তম কুমারের সঙ্গে জুটি গড়ে বদলে দিয়েছিলেন বাংলা রোমান্টিক চলচ্চিত্রের ভাষা। সেই মহানায়িকার ৯০ তম জন্মদিন আজ। ১৯৩১ সালের এদিন পাবনায় জন্মগ্রহণ করেন সুচিত্রা সেন।

তুখোড় ব্যক্তিত্ব, মায়াভরা চাহনি, গ্ল্যামার, মন জয়করা অভিনয়- সব কিছু নিয়ে বাংলা চলচ্চিত্রের সব সময়ের সেরা সুচিত্রা সেন। দাদা নাম রাখেন কৃষ্ণা। আর বাবার দেয়া নাম রমা। রমা সেন পঞ্চাশ দশকে হাজির হন টালিগঞ্জে, নায়িকা নয়, গায়িকা হতে। ১৯৫২ সালে ‘শেষ কোথায়’ ছবির মাধ্যমে রূপালী পর্দায় যাত্রা শুরু হলেও, সে ছবি আলোর মুখ দেখেনি। ১৯৫৩ সালে মহানায়ক উত্তম কুমারের সঙ্গে সাড়ে চুয়াত্তর দিয়ে সাড়া ফেলে দেন চলচ্চিত্র অঙ্গনে। এরপর উত্তম কুমারের সঙ্গে জুটি বেঁধে পর্দায় রাজত্ব করেছেন।

মরনের পর, শিল্পী, সাগরিকা, হারানো সুর, চাওয়া পাওয়াসহ ৩০টির বেশি ছবিতে এই জুটি দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে বনে যান সর্বকালের সেরা জুটি।  তবে উত্তম ছাড়াও যে অনবদ্য তিনি সেটাও প্রমাণ করে দিয়েছেন দীপ জ্বেলে যাই, সাত পাকে বাঁধার মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করে।

সুচিত্রা সেন হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেন। তাঁর অভিনীত প্রথম হিন্দি ছবি দেবদাস। আর সঞ্জিব কুমারের সাথে করা ‘আধি’ হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে রীতিমত মাইল ফলক হয়ে রয়েছে। ১৯৭৮ সালে অজানা কারণে সুচিত্রা সেন পর্দা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। ভক্তদের শত আগ্রহেও তিনি আর ফেরেননি আলো ঝলমলের দুনিয়ায়। আড়ালে থেকেই ২০১৪ সালে ১৭ই জানুয়ারি পৃথিবী থেকে বিদায় নেন অনিন্দ্য সুন্দর সুচিত্রা সেন।

Sharing is caring!