গাজী মোঃ ইমাম হাসান॥

বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিয়ষক উপ- কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে।বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি’র নির্দেশক্রমে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের  সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি দলের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক উপ কমিটি অনুমোদন করেছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা ইতোপূর্বে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের প্রাক্তন হাই কমিশনার ড. সাইদুর রহমান খান কে এই উপ কমিটির চেয়ারম্যান এবং চাঁদপুরের কৃতি সন্তান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং আইন ও জ্বালানী বিশেষজ্ঞ ড. সেলিম মাহমুদ কে এই উপ কমিটির সদস্য সচিব মনোনীত করেছেন ।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহার ও রাষ্ট্রীয় কর্মপরিকল্পনা সমূহ বাস্তবায়ন এবং আওয়ামী লীগের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা টেকসই করার লক্ষ্যে দলকে তথ্য-উপাত্ত ও গবেষণা কর্মের মাধ্যমে সর্বোতোভাবে সহায়তা করাই আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ কমিটির কাজ । সামাজিক ও অর্থনৈতিক সকল সূচকে অভাবনীয় ও বৈপ্লবিক সাফল্য অর্জনকারী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। এই লক্ষ্য অর্জনের ক্ষেত্রে অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এই চ্যালেঞ্জ সমূহ মোকাবেলায় সরকারের সক্ষমতা অনেকটা নির্ভর করছে দলের দক্ষতা ও মেধার উপর। তাই প্রতিনিয়ত তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ, বিশ্লেষণ এবং গবেষণা ও প্রশিক্ষণসহ নানামুখী কার্যক্রমের মাধ্যমে দলের বিভিন্ন পর্যায়ে দক্ষতা বৃদ্ধি প্রয়োজন। এই উপ কমিটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিশ্লেষণ পূর্বক সেগুলো দলের নীতি নির্ধারণী পর্যায়ে উপস্থাপন এবং দলের প্রয়োজনে সকল প্রাসঙ্গিক বিষয়ে গবেষণা কর্ম পরিচালনা ও তার ফলাফল সময়ে সময়ে সর্বোচ্চ নেতৃত্ব কে অবহিত করে থাকে । এটি মূলত আওয়ামী লীগের ‘থিঙ্ক ট্যাঙ্ক’ উপ কমিটি ।

এই উপ কমিটির সদস্য মনোনীত হওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, চাঁদপুর ৩ আসনের মাটি ও মানুষের নেতা,চাঁদপুরের উন্নয়নের রুপকার শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ জে আর ওয়াদুদ টিপুর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন চাঁদপুরের কৃতি সন্তান,শিল্পপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক রাকিব উদ্দিন ঢালী জুয়েল।

এছাড়া প্রয়োজনীয় তথ্য- উপাত্ত সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিশ্লেষণের জন্য বেশ কয়েকজন সাবেক ছাত্র ও যুব নেতাকে এই উপকমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই সকল ব্যক্তি তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও সংরক্ষণে এই উপকমিটি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ডাটাবেস টিম কে সার্বিক ভাবে সহায়তা করবেন।নব গঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের  তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য মনোনীত হওয়ায় এবং সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন করার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও দোয়া চেয়েছেন  রাকিব উদ্দিন ঢালী জুয়েল।

Sharing is caring!