নিজস্ব প্রতিনিধি ॥

তেলবাহী লরির চাকা ফেটে বিপরীত দিক থেকে আসা সিএনজি স্কুটারের সাথে মুখোমুখি সংর্ঘষে সিএনজি স্কুটার চালকসহ ৩জন মৃত্যুবরণ করেছেন। মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) সকালে চাঁদপুর-ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কের সরকারি হাসপাতালের সামনে এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সিএনজি স্কুটার চালক জাহাঙ্গীর (৪০), যাত্রী রুমা বেগম (৩০) ও মামুন (৩৫)। মামুনকে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে পথিমধ্যে তিনিও মৃত্যু তিনিও মৃত্যুবরণ করেন। আর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় জাহাঙ্গীর ও রুমার।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সকাল পৌনে ৮টার দিকে মেঘনা অয়েলের একটি তেলবাহী লড়ি রায়পুর থেকে ফরিদগঞ্জের দিকে আসার সময় চাঁদপুর- ফরিদগঞ্জ-রায়পুর আঞ্চলিক মহাসড়কের ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে চাকা ফেঁটে যায়। এতে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সিএনজি স্কুটারের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। তেলবাহী লরি ও সিএনজি স্কুটারটি পাশবর্তী খালে পড়ে যায়। এতে সিএনজি স্কুটারের তিনজন যাত্রী গুরুতর আহত হয়।

আশপাশের লোকজন তাদের দ্রুত উদ্ধার করে সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিএনজি স্কুটার চালক জাহাঙ্গীরও রুমা বেগমকে মৃত ঘোষনা করেন। এছাড়া গুরুতর আহত মামুনকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে পথিমধ্যে তিনিও মৃত্যুবরণ করেন।

নিহত সিএনজি স্কুটার চালকের বাড়ী পাশবর্তী রায়পুর উপজেলায়, রুমার বাড়ি ফরিদগঞ্জের চরবড়ালি গ্রামে এবং মামুনের বাড়ি উপজেলার শোল্লা গ্রামে।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: সুব্রত সাহা এসব মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদ হোসেন বলেন, সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন এবং সিএনজি স্কুটার উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। তিনিও নিহতদের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

Sharing is caring!