করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় গণসচেতনামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে পৌরসভাধীন হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজের উদ্যোগে সচেতনামূলক কর্মসূচী পালন ও বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ের সম্মুখে কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের সামনে দুই ঘন্টাব্যাপী অবস্থান করেন, বিদ্যালয়ের ৭০ জন শিক্ষক ও কর্মচারী।

প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. আবু সাঈদের সভাপতিত্বে ও সার্বিক ব্যবস্থাপনায় গণসচেতনতামূলক এই অবস্থান কর্মসূচীতে ব্যানার, সচেতনতামূলক শ্লোগানসহ বিভিন্ন পেস্টুন, লিফলেট ও মাস্কসহ অবস্থান করেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। এ সময় যেসব পথচারী এবং সিএনজিচালিত স্কুটার ও অটোরিক্সা এবং পিকআপসহ যানবাহনের যাত্রীদের মাস্ক ছিলো না, বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাদেরকে বিনামূল্যে মাস্ক দেয়া হয়।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. হোসাঈনুল আজমের উপস্থাপনায় এই গণসচেতনামূলক কার্যক্রমে স্থানীয় ও এলাকাবাসী, পথচারী এবং যাত্রীদের উদ্দেশ্যে হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে বিভিন্ন সচেতনতামূলক শ্লোগান ও বক্তব্য তুলে ধরেন, প্রভাষক মোহাম্মদ আলী রনি ও সহকারী শিক্ষক মো. মনির হোসাইন। এই প্রচারণামূলক কার্যক্রমে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সহস্রাধীক মাস্ক বিতরণ করা হয়।

এ সময় কলেজ শাখার সমন্বয়কার মো. তাজুল ইসলাম, বিএম শাখার সমন্বয়কারী মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ভোকেশনাল শাখার সমন্বয়কারী মো. জহিরুল ইসলাম মজুমদার, প্রভাষক আব্দুল মালেক, আকতার হোসেন ও উম্মে সালমা, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান, শ্যামল কৃষ্ণ সাহা ও মো. শাহজাহান মুন্সীসহ সকল শিক্ষক ও কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

এ দিকে একই সময়ে এবং একই স্থানে হাজীগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকেয়া সুলতার নেতৃত্বে গণসচেতনামূলক কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ এবং স্বর্ণকলি হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. মহিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বর্ণকলি হাই স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারী ও স্বর্ণকলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোস্তফা কামালের নেতৃত্বে টোরাগড় স্বর্ণকলি হাই স্কুলের সামনে ব্যাপক কর্মসূচী পালন করে।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় জেলা আইন শৃঙ্খলা সভার সিদ্বান্ত মোতাবেক এবং জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. গিয়াস উদ্দিন পাটওয়ারীর নির্দেশনায় চাঁদপুরের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজের উদ্যোগে সচেতনামূলক কর্মসূচী পালন করে।

Sharing is caring!