‘বঙ্গবন্ধুর দর্শন সমবায় উন্নয়ন’- এই শ্লোগানকে সামনে রেখে চাঁদপুরে ৪৯তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে জেলা প্রশাসন, সমবায় বিভাগ ও সমবায় সমিতি সমূহের আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, এলাকার সমবায়ের মাধ্যমে সারাদেশের উন্নয়ন সম্ভব। সকল ধরনের উৎপাদনে সমবায়ের অবদান রয়েছে। কৃষিতে যে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে তা সমবায়ের মাধ্যমে হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজন্ম-লালিত স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও শোষণ-মুক্ত সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণ করা। তিনি দরিদ্র ও সুবিধা-বঞ্চিত মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে গণমুখী সমবায় আন্দোলনের স্বপ্ন দেখেছিলেন। সংবিধানে মালিকানার নীতি হিসেবে সমবায়কে জাতীয় অর্থনীতির দ্বিতীয় খাত হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। তাই সমবায়-ভিত্তিক সমাজ গঠনে সকলকে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করলে সমবায়ের মাধ্যমে ন্যায়-ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

বিশেষ অতিথি বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেন, সমবায়ের সুবিধাভোগী অনেকেই আছেন, কিন্তু একজনওকি আছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে কাজ করছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভিশনের সাথে আপনাদের কাজ করতে হবে। চাঁদপুর থেকে অনেক সমিতি স্বর্ন পদক পাওয়ার পর কাতের কার্যক্রমে ভাটা পরে যায়। পদক পাওয়ার পরে আর কাজ করে না। ভারতের চাইতে অনেক কিছুতে আমরা এগিয়ে গেছি। তারা আমাদের অর্থনীতির গতি থেকে এখন ঈর্ষান্বিত হয়। তাই আমাদের সকল ক্ষেত্রেই এগিয়ে যেতে হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের সভাপতিতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, সমবায় আন্দোলনটি শতাব্দী প্রাচীন আন্দোলন। তৃনমূলকে অর্থনীতিতে সম্পৃক্ত করতে সমবায় আন্দোলনের শুরু। ক্ষুদা ও দারিদ্রমুক্ত দেশে গঠনে বঙ্গবন্ধু সমবায়কে সম্পৃক্ত করেছেন।

জেলা সমবায় কার্যালয়ের পরিদর্শক মো. মোতালেব খানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) কাজী আবদুর রহিম, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা, চাঁদপুর কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আলী আরশাদ মিয়াজী, সমবায়ী শহীদউল্লা খান, জেলা সমবায় কর্মকর্তা মোমেন হোসেন ভূঁইয়া, সদর উপজেলা সমবায় কর্মবর্তা দুলাল চন্দ্র দাস।

Sharing is caring!