গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হলে মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে বলে মন্তব্য করেছেন হাজীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও হাজীগঞ্জ মডেল সরকারি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ড. মো. আলমগীর কবির পাটওয়ারী।
তিনি মঙ্গলবার বিকেলে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

এ দিন বাদ আছর হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা ও পৌর বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় তিনি আরো বলেন, সরকার তারেক জিয়াকে ভয় পায়। কারণ তারেক জিয়া দেশে আসলে তাদের ভীত লড়ে উঠবে। তাই তারা ভয়ে তারুণ্যের অহংকার তারেক জিয়াকে দেশে আসতে দেয়না।

তারেক জিয়া একদিন বীরের বেশে এদেশে ফিরে আসবে। সেই দিন আর বেশী দূরে নয়। বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা ছিলেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। আজ বাংলাদেশের ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া গৃহবন্ধী। আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে।

তিনি বলেন, আন্দোলনে গতি আনতে হলে আমাদের ত্যাগ করতে হবে। আগামীতে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম করে ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হবে।

তিনি বলেন, বিএনপি এখনো জনপ্রিয় দল। এখনো যদি নির্বাচন হয় বিএনপি ৭০/৭২ ভাগ পাবে। আসুন বিএনপিকে ঐক্যবদ্ধ করে রাজপথে আন্দোলনকে আরো গতিশীল করে।

তিন বলেন, হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তিতে বিএনপির প্রবীণ নেতা প্রাক্তন চার বারের এমপি, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান যার হাতে ধানের শীষ তুলে দিয়েছিলেন, বেগম খালেদা জিয়ার আস্থাভাজন এম এ মতিনের আদর্শে আদর্শবান্বিত হয়ে আমরা ঐক্যবদ্ধ রাজনীতিতে বিশ^াস করি। বিএনপি কখনো দাঙ্গা-হামলা ও সন্ত্রাসী কর্মকা-ে বিশ^াস করেনা।

পৌর বিএনপির আহবায়ক মো. আবুল বাসার এর সভাপতিত্বে ও পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ¦ আবু বকর সিদ্দিকের পরিচালনায়

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মিজানুর রহমান লিটন, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান রানা, পৌর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক আকবর হোসেন মৃধা, খালেদ মিঠু, পৌর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আবদুল লতিফ।

পৌর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মনির হোসেন ভূইয়া, সাবেক সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান, পৌর ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন কবির, যুবদল নেতা আবু রায়হান সোহেল, জিসান আহমেদ সিদ্দিকী, ইয়াসিন আরাফাত অনিক, জহির আহমেদ জহির, আল আমিন বাবু, সাখাওয়াত হোসেন, ইকবাল হোসেন সর্দার।

ছাত্রদল নেতা মো. হান্নান তালুকদার, ফরহাদ মামুন, সোহেল কাজী, মোহাম্মদ আলী, কবির মিয়াজী, সোহেল কাজী, রইফুল ইসলাম জিলানী, মাইনুদ্দীন খান, ফয়সাল, নোমান ও রোমান মিজি, ইব্রাহীম, মেহেদি, ফারুক, মহিন, দ্বীন ইসলাম টগর, মোর্শেদ আলম, রনি, সাখাওয়াত প্রমূখ।

Sharing is caring!