পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে শাহরাস্তিবাসীকে  ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহালাম এলএলবি।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন বৈশ্বিক এই করুণা  পরিস্থিতির ক্রান্তি লগ্নে, আমরা ঈদুল আযহার উৎসব পালন করার জন্য অধীর আনন্দে অপেক্ষা  করছি। আমরা যেন ভুলে না যাই, যে এই করোনা পরিস্থিতি করোনা  ভাইরাসের  যে প্রভাব আমাদের মাঝে ছিল আমরা যেন তার নিয়ম    কানুন সঠিক ভাবে পালন করে চলাচল করি। এটা যেন আমরা ভুলে না যাই। আপনারা সরকারী নির্দেশনা পালন করে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখবেন।

অবশ্যই মুখে মাস্ক ব্যতীত কেহ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বাহির হবেন না। আসন্ন পবিত্র ঈদ উল আযহা উপলক্ষে  আমাদের সরকারী  নির্দেশনা আমাদের মাননীয় রেঞ্জ ডি আইজি মহোদয় মাননীয় পুলিশ সুপার চাঁদপুর মহোদয় আমাদেরকে যে দিক – নির্দেশনা দিয়েছেন আমরা প্রত্যেক মসজিদ কমিটির কাছে সেই দিক- নির্দেশনা পৌঁছে দিয়েছি,  এবং শাহরাস্তি থানার এলাকাধীন গুরুত্বপূর্ণ মসজিদের ইমাম সাহেবদের সাথে উক্ত বিষয়ে মত বিনিময় সভার মাধ্যমে  উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বির্দেশনা সমুহ সঠিক ভাবে পালম  করার জন্য বলা হয়েছে।

মসজিদ কমিটির সাথে ও আমরা এই বিষয়ে আলোচনা করেছি। আপনারা এই নির্দেশনা বাস্তবায়ন করে  ঈদের  জামায়াত প্রত্যেক মসজিদ ভিত্তিক করবেন,  ঈদগা মাঠে নয়।আমি অফিসার ইনচার্জ শাহরাস্তি থানা হিসাবে আপনাদের আহবান করছি আপনারা যারা মসজিদে জামায়াতে অংশগ্রহণ করবেন তাহারা প্রত্যেকে নিজ নিজ জায়নামাজ হাতে নিয়ে আসবেন,  মসজিদে এসে ভালো করে হাত মুখ ধুয়ে মসজিদে প্রবেশ করবেন। আমি আশা করছি আপনাদের এই জামায়াতেনিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আমরা আইন শৃংখলা বাহিনী  সর্বদা সচেষ্ট থাকবো।

আমাদের গোয়েন্দা নজর দারী অব্যাহত থাকবে যাতে কোন জঙ্গী তৎপরতা, মসজিদ ভিত্তিক ঈদের জামায়াতে অপতৎপরতাচালাতে না পারে। এ ব্যাপারে  আমরা তৎপর আছি।

আপনাদের প্রতি আকুল আবেদন থাকবে আপনারা ঈদের দিন পশু জবাই করার পরইসাথে সাথে নিজ নিজ দায়ীত্বে বর্জ্য অপসারন করে নিবেন  তাহলে আমাদের শাহরাস্তি থানা এলাকার সকল স্থানের  পরিবেশ  নষ্টহবে না।

পরিবেশ ভালো থাকবে এবং আমরা সবাই ভালো থাকবো। আপনাদেরকে আবার ও ঈদউল আযহার  শুভেচ্ছা জানিয়ে  আমি আমার বক্তব্য শেষ করছি। আমাূের শাহরাস্তি থানায় যাহারা কর্মরত আছি তাদের জন্য আপনারা  সকলে দোয়া করবেন  আমরা ও আপনাদের জন্য দোয়া রাখছি। আল্লাহ হাফেজ।

Sharing is caring!