কচুয়া উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন শহীদ স্মৃতি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উন্নয়নমূলক কাজের ৬ তলা বিশিষ্ট নতুন ভবন নির্মাণ কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগে প্রতিবাদ করায় উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরসহ স্থানীয়দের মামলা দিয়ে হয়রানি ও তাঁকে সাময়িক বরখাস্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে।

শাহজাহান শিশিরের পদ বহাল রাখা ও কাজে গাফিলতির বিষয়টি বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে বের করে সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানান। গতকাল রবিবার সকালে কচুয়া-তেতৈয়া-সিংআড্ডা সড়কের কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে সর্বস্তরের জনসাধারনের ব্যানারে এ বিশাল মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান গাজী আব্দুল হালিম, আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তফা কামাল মেম্বার, বাবুল মজুমদার, আব্দুল জলিল, গিয়াস উদ্দিন, আলাউদ্দিন মোল্লা, ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম তালুকদার, যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন, সফিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ মোশারফ,শাহপরান, মাহবুব বেপারী প্রমুখ। এসময় এলাকার বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, শাহজাহান শিশির একজন জনপ্রিয় জনতার উপজেলা চেয়ারম্যান। তিনি কখনো অন্যায় করেননি ও অন্যায়ের সাথে আপোষ করেননি। সেদিন শহীদ স্মৃতি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্মান কাজে অনিয়ম হওয়ায় চেয়ারম্যান প্রতিবাদ করে।

এজন্য তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হবে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হবে এাঁ কোনো ভাবে হতে পারে না। আমরা ওই মামলা ও সাময়িক বরখাস্ত প্রত্যাহার চাই এবং শাহজাহান শিশিরকে স্ব-পদে বহাল রেখে ও বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে প্রকৌশলীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

Sharing is caring!