নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু গোটা বলিমহলকে নাড়িয়ে দিয়েছে।

তার মৃত্যুর জন্য পরোক্ষভাবে দায়ী করা হচ্ছে বলিউড ভাইজান সালমান খান ও পরিচালক করণ জোহরকে।

এমনকি সুশান্তের আত্মহত্যার ঘটনায় সালমান খান ও করণ জোহরসহ আটজনের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি মামলাও করা হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, সালমানসহ এসব ব্যক্তি সুশান্তের চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে দেয়নি। তাদের কারণেই চলচ্চিত্র অনুষ্ঠানে ডাকা হয়নি সুশান্ত সিংকে। যে কারণে লকডাউনে মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকেন সুশান্ত। অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন এই তরুণ তারকা।

এমন পরিস্থিতিতে গত ১৯ জুন সকালে পাটনায় সালমানের বিইং হিউম্যান স্টোরের সামনে বিক্ষোভ করেন সুশান্তের ভক্ত-অনুরাগীরা।

মুম্বাইয়ে সালমানের বান্দ্রার বাসভবনের সামনেও ‘হায় হায় সালমান খান… মুর্দাবাদ সালমান’ বলে স্লোগান তুলতে দেখা গেছে সুশান্তভক্তদের।

এমন পরিস্থিতিতে সুশান্তের মৃত্যুর এক সপ্তাহ পর মুখ খুললেন সালমান খান।

শনিবার একটি টুইটে ভক্তদের উদ্দেশে সালমান লিখেছেন– ‘আমার ভক্তদের কাছে অনুরোধ, সুশান্তের ভক্তদের পাশে থাকুন। ওদের কথায় কিছু মনে করবেন না, এসবের পেছনে থাকা ওদের আবেগের কথাটা ভাবুন। দয়া করে ওদের পরিবার ও ভক্তদের পাশে থাকুন। প্রিয়জনের চলে যাওয়া খুবই কষ্টের।’

প্রসঙ্গত গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রা ফ্ল্যাটে ভারতীয় চলচ্চিত্রের চলতি সময়ের সফল অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হয়। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে পোস্টমর্টেমের রিপোর্টে জানানো হয়। গত ছয় মাস ধরে সিনেমায় কাজ হারিয়ে সুশান্ত মানসিক বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন ধারণা করা হচ্ছে।

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি, রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড

Sharing is caring!