বিশেষ প্রতিনিধি:

হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১ ও ৬নং ওয়ার্ডে সাধারণ ভাতা ভোগীদের মাঝে জি টু পিতে (সরকার টু জনগণ) ইলেকট্রিক প্রক্রিয়া বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত মহিলা, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগীদের ভাতা বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১০ জুন পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড ও ১১ জুন পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে এ ভাতা বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

গত ১০ জুন ৬নং ওয়ার্ডে ৬৮জন বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত মহিলাকে ৩ হাজার টাকা করে এবং ১১জন অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীর মাঝে সাড়ে ৪ হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়।

১১ জুন ১নং ওয়ার্ডে ৮৪জন বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত মহিলাকে ৩ হাজার টাকা করে এবং ১৭জন অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীর মাঝে সাড়ে ৪ হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়। পাশা-পাশি ২নং ওয়ার্ডের ৮জনকেও একই দিন ভাতা প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৩ জুন পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে পৌর মেয়র আ. স. ম. মাহবুব-উল আলম লিপন পৌরভবনে এ ভাতা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

পৌর মেয়র আ. স. ম. মাহবুব-উল আলম লিপনের নির্দেশে পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে সাধারণ ভাতা ভোগীদের মাঝে জি টু পিতে (সরকার টু জনগণ) ইলেকট্রিক প্রক্রিয়া বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত মহিলা, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগীদের ভাতা বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

বুধবার পৌরসভাধীন ৬নং ওয়ার্ডের প্রতিবন্ধী শারমিন জাহান রুপার বাড়ীতে গিয়ে পৌর মেয়রের নির্দেশক্রমে ব্যাংক এশিয়ার রিলেশানশিপ কর্মকর্তা মো. আল আমিন ও উদ্যোক্তা মো. ওমর ফারুক তার হাতে বয়স্ক ভাতার নগদ অর্থ তুলে দেন। ছবি-নতুনেরকথা।

জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা চিন্তা করে ও ব্যাংকে যাতায়াতের খরচ এবং দীর্ঘ সময় বয়স্কদের লাইনে দাঁড়িয়ে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলণের ঝুঁকি এড়াতে পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে ব্যাংকের কর্মকর্তা ও পৌরসভার উদ্যোক্তার সমন্বয়ে এবং স্থানীয় কাউন্সিলরদের সহযোগিতায় স্ব-স্ব ওয়ার্ডে এ ভাতা কার্যক্রম প্রদান করা হচ্ছে। ইতমধ্যে ৩টি ওয়ার্ডে ভাতা বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য ওয়ার্ডেও প্রতিদিনই সিডিউল অনুপাতে এ ভাতা প্রদান করা হবে। যে ওয়ার্ডে ভাতা প্রদান করা হয় পূর্বের দিন ওই ওয়ার্ডে কাউন্সিলরদের মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হচ্ছে।

হাজীগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোক্তা মো. ওমর ফারুক জানান, আমাদের পৌরসভার মেয়র মহোদয় স্যার, জনগণের করোনা ভাইরাস প্রাদূর্ভাব ঠেকাতে এবং বয়স্ক ও অসুস্থ্যদের কথা চিন্তা করে স্ব-স্ব ওয়ার্ডে বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত মহিলা এবং অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীর মাঝে গিয়ে এ টাকা বিতরণের নির্দেশ প্রদান করেছেন তারই আলোকে আমরা বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে এ টাকা বিতরণ করছি।

তিনি আরো বলেন, পৌর মেয়রের নির্দেশে অনেক বয়স্ক অসুস্থ্য ব্যক্তিদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে টাকা পৌঁছে দিয়ে আসছি। যা মেয়র মহোদয়ের নির্দেশক্রমে পরিচালিত হচ্ছে।

আগামী ১৪ জুন রবিবার পৌরসভার ডিজিটাল সেন্টারে ৮নং ওয়ার্ডের বয়স্ক, বিধবা/স্বামী নিগৃহিত এবং অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীর মাঝে ভাতার নগদ অর্থ বিতরণ করা হইবে।

Sharing is caring!